রামপুরায় ১৬ কুকুর হত্যা মামলায় নিরাপত্তা প্রহরীর ৬ মাসের জেল | daily-sun.com

রামপুরায় ১৬ কুকুর হত্যা মামলায় নিরাপত্তা প্রহরীর ৬ মাসের জেল

ডেইলি সান অনলাইন     ১০ মে, ২০১৮ ১৬:৩২ টাprinter

রামপুরায় ১৬ কুকুর হত্যা মামলায় নিরাপত্তা প্রহরীর ৬ মাসের জেল

 

রাজধানীর বাগিচার টেকে ২ কুকুর ও ১৪টি কুকুর ছানাকে জীবন্ত পুঁতে ফেলার দায়ে বাগিচার টেক কল্লান সমিতির এক নিরাপত্তা প্রহরীকে ৬ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।  আজ বৃহস্পতিবার (১০ মে) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. আহসান হাবিব এ আদেশ দেন।

একই সঙ্গে তাকে ২০০ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৭ দিনের জেল দেওয়া হয়েছে। 


দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির নাম মো. সিদ্দিক ভোলা জেলার চরফ্যাশনের ওসমানগঞ্জের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত দুলাল মিয়ার ছেলে। বর্তমানে তিনি পলাতক। আদালত বলেছে, আসামি গ্রেপ্তার কিংবা আত্মসমর্পণ করার দিন থেকে শাস্তি কার্যকর হবে।


মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত বছরের ২৫শে অক্টোবর রাত ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে ২টি মা কুকুর এবং ১৪টি বাচ্চা কুকুরকে মাটি চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়। এর মধ্যে থেকে ২টি মা কুকুরকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে অর্ধমৃত করে এবং বাচ্চা কুকুরগুলোকে বস্তায় ভরে মাটি চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় গত ১ নভেম্বর পিপল ফর এনিমেল ওয়েল ফেয়ার বাংলাদেশ এর সদস্য রফিকুল হক রামপুরা থানায় ১৯২০ সালের প্রাণীর প্রতি নিষ্ঠুর আইনের ৭ ধারায় মামলাটি দায়ের করেন। এ ঘটনায় রামপুরা থানার এসআই নাছির উদ্দিন গত ৩০ নভেম্বর আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। চলতি বছরের ১৯ এপ্রিল আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত। মামলার বিচারকাজ চলাকালে ১৫ জন সাক্ষির মধ্যে ৬ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন আদালত।


বাদীপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট মিনু রানী রায় আর আসামিপক্ষে ছিলেন কাশেম আলী।

 


Top