ভারতে বয়স ১৮ হলেই বিয়ে না করলেও ‘দাম্পত্য’ বৈধ | daily-sun.com

ভারতে বয়স ১৮ হলেই বিয়ে না করলেও ‘দাম্পত্য’ বৈধ

ডেইলি সান অনলাইন     ৮ মে, ২০১৮ ১৭:৪১ টাprinter

 ভারতে বয়স ১৮ হলেই বিয়ে না করলেও ‘দাম্পত্য’ বৈধ

প্রাপ্তবয়স্ক যুবক-যুবতীরা বিয়ে না করেও লিভ-ইন সম্পর্কের মাধ্যমে থাকতে পারেন, এমনটাই রায় দিল ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। কেরলের একটি মামলার প্রেক্ষিতে সম্প্রতি এই রায় দিল দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

 

কেরলের নন্দকুমার নামে এক যুবক তুষারা নামে এক যুবতীকে বিয়ে করেন। নন্দকুমারের বিরুদ্ধে মেয়েকে অপহরণের অভিযোগ তুলে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন তুষারার বাবা। হাইকোর্টে সেই বিয়ে বাতিল করে তুষারাকে তাঁর বাবার কাছে পাঠিয়ে দেয়। গত বছর এপ্রিল মাসে তুষারাকে বিয়ে করেন নন্দকুমার। তখন তাঁর বয়স ২১ হয়নি। তুষারা বয়স ছিল ২০ বছর।

 

চাইল্ড ম্যারেজ অ্যাক্ট অনুযায়ী, মেয়েদের ক্ষেত্রে ১৮ ও ছেলেদের ক্ষেত্রে ২১ বছরের কম হলে আইনত বিয়ে করা যায় না। নন্দকুমার যখন তুষারাকে বিয়ে করেন, তখন তাঁর বয়স ২০, অর্থাৎ ১৮ বছর পেরিয়ে তিনি তখন ‘সাবালক’। কিন্তু ২১ না হওয়ায় তিনি বিয়ে করার যোগ্য নন। এই আইনি বেড়াজালে ফেঁসে নন্দকুমার-তুষারার প্রেমের নাভিশ্বাস সেই সময়ে।

 

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, এর পরে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন নন্দকুমার। সেই মামলাতেই বিচারপতি এ কে সিক্রি এবং বিচারপতি অশোক ভূষণ বলেন, বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার বয়স না হলেও একসঙ্গে থাকতে পারবেন ওই যুগল। এখন তুষারা ও নন্দকুমার দুজনের বয়সই ২০ বছর। অর্থাৎ নন্দকুমার ১৮ পেরিয়ে এখন সাবালক। তাঁর বিয়ের বয়স না হলেও তিনি লিভ-ইন করতেই পারেন।

 

তবে ২০ মে নন্দকুমারের ২১ বছর বয়স হবে বলে শীর্ষ আদালতে জানিয়েছেন তিনি। সর্বোচ্চ আদালত জানিয়েছে, তুষারার ব্যক্তিস্বাধীনতা রয়েছে। তাই তিনি যাঁর সঙ্গে ইচ্ছা থাকতে পারেন। কেউ এতে হস্তক্ষেপ করতে পারে না।

 

 


Top