ভুয়া নাম ও ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে ছড়ানো হচ্ছে ঘৃণা! | daily-sun.com

ভুয়া নাম ও ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে ছড়ানো হচ্ছে ঘৃণা!

ডেইলি সান অনলাইন     ২০ এপ্রিল, ২০১৮ ১৫:৪১ টাprinter

ভুয়া নাম ও ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে ছড়ানো হচ্ছে ঘৃণা!

মা মারা গিয়েছেন বৃদ্ধাশ্রমে। শেষ সময়ে তাঁর পাশে থাকতেও নারাজ তাঁর চিকিৎসক-ছেলে!  এমনই একটি পোস্ট সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

তবে ‘চিকিৎসক-ছেলে’ হিসাবে যাঁর নাম এবং ছবি ব্যবহার করা হয়েছে, তিনি জানাচ্ছেন, ওই মহিলা তাঁর মা নন। তাঁর মা গত বছরেই মারা গিয়েছেন। এমনকী, তিনি পেশায় চিকিৎসক নন বলেও জানিয়েছেন শিবাজি ভট্টাচার্য নামে ওই ব্যক্তি। লালবাজারের সাইবার সেলে এবিষয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি।

 

বেহালার পর্ণশ্রীর বাসিন্দা শিবাজির কনস্ট্রাকশনের ব্যবসা। স্ত্রী-কন্যাকে নিয়ে সংসার। শিবাজির দাবি, গত ১৪ এপ্রিল রাত ১১ টা নাগাদ এক বন্ধু জানান, তাঁর নাম এবং ছবি ওই পোস্টে ব্যবহার করা হয়েছে। পোস্টে দাবি করা হয়, শিবাজি পেশায় কার্ডিওলজিস্ট! কলকাতায় ভাল পসার এবং দু’টি ফ্ল্যাট থাকা সত্ত্বেও তিনি তাঁর মাকে কোন্নগরের একটি বৃদ্ধাশ্রমে রেখেছেন! ক’দিন আগে সস্ত্রীক বৃদ্ধাশ্রমেও গিয়ে তিনি বলে এসেছেন, মা মারা গেলে তাঁকে যেন বিরক্ত না-করা হয়! এমনকী, মায়ের শেষকৃত্য করতেও তাঁর আপত্তি!

 

শিবাজির দাবি, তাঁর মা কোনওদিনও কোন্নগরের কোনও বৃদ্ধাশ্রমে থাকেননি। তিনি বলেন, ‘‘ওই পোস্টের মহিলার কথা কতটা সত্যি জানি না। আমি এর সাথে কোনওভাবে যুক্ত নই। এই ঘটনা আমার কাছে বড় মানসিক ধাক্কা।’’ 

 

পোস্টটি ভাইরাল হওয়ার পর বহু মানুষ কমেন্ট বক্সে তাঁকে অপমানজনক কথাবার্তা লিখেছেন বলে জানিয়েছেন শিবাজী। ব্যক্তিগতভাবে মেসেঞ্জারেও ভর্ৎসনা করা হয়েছে তাঁকে। শিবাজী জানান, পোস্টে মৃত মহিলার নাম মঞ্জু ভট্টাচার্য হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে। যা ঘটনাচক্রে তাঁর মাসির নাম! ফলে শিবাজির কোনও পরিচিত ব্যক্তি এই কাজ করেছে কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

 


Top