পাসপোর্ট, ভিসা ও অনুমোদন ছাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থান, ১৬ বিদেশি আটক | daily-sun.com

পাসপোর্ট, ভিসা ও অনুমোদন ছাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থান, ১৬ বিদেশি আটক

ডেইলি সান অনলাইন     ২০ এপ্রিল, ২০১৮ ১২:২৭ টাprinter

পাসপোর্ট, ভিসা ও অনুমোদন ছাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থান, ১৬ বিদেশি আটক

 

কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে পাসপোর্ট, ভিসা ও অনুমোদন ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও জার্মানির ১৬ নাগরিককে আটক করেছে র‍্যাব। বৃহস্পতিবার (১৯ এপ্রিল) বিকেল ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত উখিয়া ও টেকনাফে দুটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে তাদেরকে আটক করা হয় বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন র‍্যাব-৭ এর কক্সবাজার ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মেজর রুহুল আমিন।


তিনি জানান, আটককৃতদের মাঝে দুজন জার্মানির, ৬ জন যুক্তরাজ্যের এবং ৮ জন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। তারা হলেন- মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যান্টিনিট মেরি, আন্দ্রে লোনিসিয়া, স্যামুয়েলকে হেসমাম, ম্যাডিনের বেল হাসেম, ট্যাটাম অ্যাডেলেল নেলসন, ট্রেসি মিশেল হাসলম, মেলিসা ডন নেলসন, জন স্টিভেন ইভলিন, যুক্তরাজ্যের লেন্ডসে গ্রিমশ, নিজার নাজম দাহান, মার্কাস জেমস ভ্যালেন্স, মাজফার, খালিদ হোসেন, ইফতেখার মাসুদ, জার্মানির মার্শাল ও এন্ড্রিস ল্যাংজ।


মেজর রুহুল আমিন বলেন, বিভিন্ন বাহিনীর সমন্বয়ে যৌথ চেকপোস্টে বিদেশি নাগরিকদের তাৎক্ষণিক জিজ্ঞাসাবাদে ১২ জনের পাসপোর্ট এবং ভিসা সঙ্গে নেই বলে জানায় এবং বাকি চারজনের বিজনেস ও টুরিস্ট ভিসা থাকলেও আরআরআরসির অনুমতি ব্যতীত তারা টেকনাফ ও উখিয়ায় অবস্থান করে কাজ করছে যা আইনত অবৈধ।


তিনি আরও জানান, জিজ্ঞাসাবাদ ও কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

১১ মার্চ আটক বিদেশিদের একটি অংশ


এর আগে গত ১১ মার্চ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রবেশের চেষ্টাকালে দুপুর ১২টার দিকে কক্সবাজারের উখিয়া শহীদ মিনারের কাছে উখিয়া-টেকনাফ সড়কে গাড়ি তল্লাশির সময় বেশ কয়েকজন নারীসহ ৩৯ বিদেশিকে আটক করে পুলিশ। তাদের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, ফ্রান্স, তুরস্ক, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, চায়না, ইন্দোনেশিয়া এবং মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশের নাগরিক ছিলেন। তারা আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থা এমএসএফ, ডেনিস, এসিপি, রিলিফ ইন্টারন্যাশনালে কর্মরত। তবে পর্যটন ভিসা থাকলেও তাদের ‘ওয়ার্ক পারমিট’ ছিল না বলে জানায় পুলিশ।


পরে ওই দিন বিকেল চারটার দিকে অঙ্গীকারনামা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।


এরও আগে কয়েক দফায় বিদেশিদের আটক করে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন।


উল্লেখ্য, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাসপোর্ট ও ভিসা ছাড়া কোন বিদেশি নাগরিককে অবস্থান না করার নির্দেশনা দিয়েছিল সরকার।

 


Top