ফের সিরিয়ায় হামলা, আকাশেই ধ্বংস সব ক্ষেপণাস্ত্র | daily-sun.com

ফের সিরিয়ায় হামলা, আকাশেই ধ্বংস সব ক্ষেপণাস্ত্র

ডেইলি সান অনলাইন     ১৮ এপ্রিল, ২০১৮ ১১:২০ টাprinter

ফের সিরিয়ায় হামলা, আকাশেই ধ্বংস সব ক্ষেপণাস্ত্র

সিরিয়ার এয়ারবেস আশ-শাইরাতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়েছিল৷ একই সঙ্গে দামেস্কের কাছে আদ-দুমাইর বিমানঘাঁটিকেও লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়। তবে এবার নিক্ষিপ্ত সব ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই ধ্বংস করা গেছে বলে জানিয়েছে সিরিয়ার এয়ার ডিফেন্স৷

 

খবর অনুসারে, আশ-শাইরাত এয়ারবেসে ৯টি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছিল৷ ৩টি ক্ষেপণাস্ত্র টার্গেট করা হয়েছিল আদ-দুমাইর বিমানঘাঁটিতে৷ এটি উত্তর পূর্ব দামাস্কাসে অবস্থিত৷ সিরিয়ান ডিফেন্স ফোর্সের তরফ থেকে এই খবরটি প্রকাশ করা হয়েছে৷

 

এই হামলা নিয়ে সরকারিভাবে কোনও তথ্য প্রকাশ করা হয়নি৷ তবে সিরিয়ার সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে বলেছে, রাজধানী দামেস্কের নিকটবর্তী আদ-দুমাইর বিমানঘাঁটি লক্ষ্য করে তিনটি এবং হোমস প্রদেশের আশ-শাইরাত বিমানঘাঁটি লক্ষ্য করে ছয়টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয় যার সবই ধ্বংস করে দেয় দেশটির ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা।

 

এর আগে ১৪ এপ্রিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স ও ব্রিটেন একসঙ্গে সিরিয়ায় ১০০ টি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ফেলেছিল৷ হোয়াইট হাউস থেকে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ট্রাম্প জানান, “কিছুদিন আগেই আমি মার্কিন সেনাকে হামলার কথা বলি৷ সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাসার আল-আসাদের রাসায়নিক অস্ত্রের পরিপ্রেক্ষিতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷”

 

সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, মার্কিন প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে বিমানহানা একাধিক জায়গায় করা হয়েছে৷ হামলার জন্য তোমাহক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে৷ আসাদের রাসায়নিক অস্ত্র হামলার কথা উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেছেন, “এটা মানুষের কাজ নয়৷ দানবের কাজ৷ আমাদের কাজ রাসায়নিক অস্ত্রে বিরুদ্ধে একটি কঠিন প্রতিবন্ধক৷”

 

এর পাশাপাশি রাশিয়া ও ইরানকেও সতর্ক করছে আমেরিকা৷ আসাদ সরকারের পিছনে এই দুটি শক্তিরই হাত রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে৷ ট্রাম্প বলেছেন, “ইরান ও রাশিয়া, আমি জিজ্ঞাসা করছি কোন দেশ নির্দোষ পুরুষ, মহিলা ও শিশুদের গণহত্যা করতে সাহায্য করে?”

 

ব্রিটিশ মুখ্যমন্ত্রী থেরেসা মে বলেছেন, সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র যাতে না ব্যবহার করা হয়, তাই এই অপারেশনে অংশ নিয়েছেন তারা৷ ফ্রান্সর প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রো বলেছেন, আমেরিকা ও ব্রিটেনের সঙ্গে ফ্রান্স অপারেশনে যোগ দিয়েছে তার কারণ সিরিয়া রাসায়নিক অস্ত্রের ব্যবহারিক প্রয়োগ করেছে৷


Top