‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী শক্তি কোনোদিনই বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা মেনে নেয়নি’ | daily-sun.com

‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী শক্তি কোনোদিনই বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা মেনে নেয়নি’

ডেইলি সান অনলাইন     ১৭ এপ্রিল, ২০১৮ ১২:৩২ টাprinter

‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী শক্তি কোনোদিনই বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা মেনে নেয়নি’

 

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী শক্তি কোনোদিনই বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা মেনে নেয়নি। নিতে পারবেও না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, তাই প্রতিটি ক্ষেত্রে তাদের ষড়যন্ত্র চলছেই। 


ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার (১৭ এপ্রিল) সকালে ধানমন্ডি ৩২-এ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে আওয়ামী লীগের পক্ষে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।


তিনি বলেন, বাংলাদেশে যারা ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস ও ৭ মার্চ স্বাধীনতার সত্যিকারের ঘোষণা, যা বাঙালি জাতীয়তাবাদের সংগ্রামের ঘোষণা হিসেবে সর্বাত্মক স্বীকৃত। সেই দিবস এবং যারা মুজিনগর দিবস পালন করে না তাদের রাজনীতি হচ্ছে ইতিহাসের মীমাংসিত বিষয়গুলোকে অস্বীকার করা। আর ইতিহাসের মীমাংসিত বিষয়কে নিয়ে যারা বিতর্ক ও অস্বীকার করে তারা ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হবে।


আওয়ামী লীগের এই সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা বারবার লক্ষ্য করছি, বাংলাদেশের বড় একটি দল তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে হৃদয়ে ধারণ করে না। তারা মুক্তিযুদ্ধক নির্বাচনী ইশতেহারে লোক দেখানো প্রতিশ্রুতি হিসেবে গোচরীভূত করে। যারা নির্বাচন এলে লোক দেখানো হিসেবে ব্যবহার করে তাদের মুক্তিযুদ্ধের প্রতি কতটা কমিটমেন্ট আছে -এটা আমাদের একটা সংশয় ও প্রশ্ন থেকে যায়।


বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে অবস্থিত তার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে সেখানে কিছুক্ষণ নিরবে দাঁড়িয়ে থাকেন আওয়ামী লীগ নেতারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, কৃষিমমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, সাহারা খাতুম, আব্দুল মতিন খসরু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, এনামুল হক শামীম, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ প্রমুখ।


আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে না থাকায় দলীয় সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে এই শ্রদ্ধা জানানো হয়। দলের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানোর পর আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।


এর আগে ভোরে, দিবসটি উপলক্ষে দলীয় কার্যালয় এবং মেহেরপুরে জাতীয় এবং দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

 


Top