মেয়ের বিয়ে না দেওয়ায় পরিবারের পাঁচ সদস্যকে খুন | daily-sun.com

মেয়ের বিয়ে না দেওয়ায় পরিবারের পাঁচ সদস্যকে খুন

ডেইলি সান অনলাইন     ৩ এপ্রিল, ২০১৮ ১৬:৩১ টাprinter

মেয়ের বিয়ে না দেওয়ায় পরিবারের পাঁচ সদস্যকে খুন

৪৫ বছরের বিবাহিত ব্যক্তির সঙ্গে আদরের মেয়ের বিয়ের প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছিলেন বাবা। পাত্র আবার প্রভাবশালী পরিবারের সদস্য।

এ হেন পাত্রের সঙ্গে বিয়ের প্রস্তাব নাকচ করার ভয়াবহ পরিণতি হল মেয়েটির পরিবারের।  পরিবারের পাঁচ সদস্যকেই খুন করে দেহগুলি লোপাট করে দেওয়া হয়। তাদের মধ্যে তিনজন নাবালক-নাবালিকা। ঝাড়খণ্ডের পশ্চিম সিংভূম জেলায় এই নারকীয় হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

 


কিরিবুরুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তউকির আলম জানিয়েছেন, রাম সিংহ সির্কা, তাঁর স্ত্রী পানু কুই, মেয়ে রম্ভা (১৭) এবং ছেলে কান্ডে (১২) ও সোন্যা (৮)-কে গত ১৪ মার্চ কুপিয়ে খুন করা হয়।
এরপর গত ২৭ মার্চ গুয়া থানা এলাকার তুলাসাই গ্রামের বাড়ি থেকে পাঁচ কিমি দূরে জঙ্গলে রাম সিংহ সির্কার পচাগলা দেহ উদ্ধার করা হয়। গত রবিবার পাঁচ কিমি দূরের অন্য একটি জঙ্গল থেকে বাকি চারজনের দেহ উদ্ধার করা হয়।

 


আলম জানিয়েছেন, এই ঘটনায় নয় জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তাদের মধ্যে চারজন ওই এলাকার একটি প্রভাবশালী পরিবারের সদস্য।

অভিযুক্তদের মধ্যে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

 


ওই প্রভাবশালী পরিবারের একজন রম্ভাকে বিয়ে করতে চেয়েছিল। ওই ব্যক্তি আবার বিবাহিত। কাজেই এ ধরনের বিয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন রাম সিংহ সির্কা। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে চার অভিযুক্ত ও তাদের পাঁচ শাগরেদ সির্কার স্ত্রী ও ছেলেমেয়েদের সদস্যদের রড দিয়ে পিটিয়ে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করে। ১৪ মার্চের ওই ঘটনার সময় সির্কা বাড়িতে ছিলেন না। দুষ্কৃতীরা সির্কার জন্য তাঁর বাড়িতে ওঁত্ পেতে বসেছিল। তিনি বাড়ি ফিরতেই তাঁর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে খুনের দল। এরপর তাঁর দেহ জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে ফেলে দেয়।

 


আলম বলেছেন, পুলিশের কাছে খবর রয়েছে যে, বাকি আট অভিযুক্ত পালিয়ে গিয়েছে। তাদের ধরতে জোর তল্লাশি চলছে।


Top