ভারী নিতম্ব মানেই সেক্সি! | daily-sun.com

ভারী নিতম্ব মানেই সেক্সি!

ডেইলি সান অনলাইন     ১ এপ্রিল, ২০১৮ ২১:৫৮ টাprinter

ভারী নিতম্ব মানেই সেক্সি!

বেশিরভাগ ছেলেরাই ভারী নিতম্বের মেয়েদের পছন্দ করেন থাকেন। কারণ একটাই, ভারী নিতম্বের নারীদের বেশ আকর্ষনীয় মনে করেন বেশিরভাগ পুরুষেরা।

খেয়াল করলে দেখা যে রাস্তায় কোন নারীকে দেখলে তারা এই বিষয়ে মন্তব্য করতে পছন্দ করেন।

 

গবেষণায় দেখা গেছে যে, শুধু একজন দুইজন নয় প্রায় প্রতিটি পুরুষই নারীদের এই ভারী নিতম্বের প্রতি আকর্ষণ বোধ করে থাকেন।কিন্তু কেন এমনটি হয়ে থাকেন এর বৈজ্ঞানিক ব্যাখা দিয়েছেন কতিপয় বিজ্ঞানীরা।

 

গবেষণায় বিভিন্ন ব্যাখায় বলা হয়ে থাকে যে, নারদের ভারী নিতম্ব পুরুষদের আকর্ষণ করে থাকে কারণ তারা মনে করেন যে, ভারী নিতম্বের নারীরা পূর্ণ যৌবনপ্রাপ্ত হন এবং তারা সন্তান উৎপাদানে অন্যান্য নারীদের তুলনায় বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

 

এছাড়া বিমেষজ্ঞরা বলেছেন যে, ভারী নিতম্বের নারীদের জন্ম দেওয়া সন্তান বেশ বুদ্ধিমত্তআর অধিকারী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কেননা ভারী নিতম্বের মহিলাদের উরু ও নিতম্বের চর্বি বাচ্চাদের মস্তিষ্ক বিকাশে বিরাট ভুমিকা পালন করে।নারী দেহের সকল স্থানের চর্বি তাদের সন্তানদের বুদ্ধিকে বিকশিত করা এবং তাদের ক্রম বিকাশে সহায়তা করে।

 

যুক্তরাষ্ট্রের পিটসবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক উইল লাসেক বলেন, এই অঞ্চলের চর্বি ডোকোসাহেক্সনয়িক এসিডে (ডিএইচএ) পূর্ণ যা মানব মস্তিষ্কের বিকাশে খুবই গুরুত্বপূ্র্ণ একটি উপাদান। অধ্যাপক লসেক তার সদ্য প্রকাশিত গবেষণা পত্রে আরো উল্লেখ করেন ঠিক কি কারণে মহিলাদের দেহে এতো পরিমাণ চর্বি থাকে সে বিষয়টি এখনো রহস্যময়।

 

স্তন্যপায়ী প্রাণীদের দেহে সাধারণত ৫ থেকে ১০ শতাংশ চর্বি থাকতে দেখা গেলেও নারীদেহে গড়ে ৩০ শতাংশ চর্বি থাকার ও প্রমাণ রয়েছে।লাসেকের সহকারী ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক স্টিভেন গাউলিন যিনি ইভালিউশনারি সাইকোলজির শিক্ষক দেখিয়েছেন, নারীদেহের চর্বি শিশুর মস্তিষ্ক বিকাশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।লসেক বলেন বাচ্চা বেড়ে ওঠার সময় মায়ের শরীরের ডিএইচএ গুলো একত্র হয়ে কাজ করে এবং সেগুলো মাতৃদুগ্ধের মাধ্যমে শিশুর মস্তিষ্কে পৌঁছা্য়।

 

আলিংটনে অবস্থিত টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞানের ছাত্র এরিক রাসেল নারীদের ভারী নিতম্বের বিষয়ে একটি গবেষণা করেণ। তিনি বলেন যে, নারীর কোমরের বক্রতাকে অনেক পুরুষ বেশ পছন্দ করে থাকে। গবেষণায় বলা হয় যে, গড়ে প্রায় ৩০০ জনেরও বেশি পুরুষ ২৬-৬১ ডিগ্রী পর্যন্ত নারদের কোমরের বক্রতাকে আকর্ষণীয় মনে করেন। তারা মনে করেন যে, ৪৫.৫ ডিগ্রী বক্রতাই হলো একজন নারীর কোমরের আকর্ষনীয় মাপ।তবে নারীদের কোমরের অতির্কিত বক্রতা ব্যাকপোইনসহ নানা ধরণের সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে বলে গবেষণায় মন্তব্য করেণ।


Top