নৌকায় ভোট চাওয়া আমার রাজনৈতিক অধিকার: প্রধানমন্ত্রী | daily-sun.com

নৌকায় ভোট চাওয়া আমার রাজনৈতিক অধিকার: প্রধানমন্ত্রী

ডেইলি সান অনলাইন     ১ এপ্রিল, ২০১৮ ১৬:৩১ টাprinter

নৌকায় ভোট চাওয়া আমার রাজনৈতিক অধিকার: প্রধানমন্ত্রী

 

নৌকায় ভোট চাওয়া রাজনৈতিক অধিকার বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমি যেখানে যাব, সেখানেই ভোট চাইব। শনিবার (৩১ মার্চ) সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সভার শুরুতে এ কথা বলেন।

 
প্রধানমন্ত্রী পদে থাকা অবস্থায় সরকারি সুবিধা নিয়ে আওয়ামী লীগের জনসভায় নৌকা প্রতীকে ভোট চাওয়ার বিষয়ে বিএনপির সমালোচনার জবাবে তিনি একথা বলেছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমিতো নৌকায় ভোট চাইতেই পারি, কারণ আমি দলের সভাপতি। আমি যেখানে যাব, সেখানেই ভোট চাইব। নৌকায় ভোট চাওয়া আমার রাজনৈতিক অধিকার। ’


এসময় দলীয় নেতাকর্মীদেরকে নৌকা মার্কায় ভোট চাইতে সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় যাওয়ার নির্দেশ দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


শুক্রবার সারাদেশে ঝড় ও শিলা বৃষ্টির তাণ্ডবে হতাহত ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের খোঁজ নেয়ার কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি স্থানীয় এমপিদের কাছ থেকে ক্ষয়ক্ষতির বিষয়টি জেনেছি। তাৎক্ষণিকভাবে জেলা প্রশাসনকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সার্বিক সহযোগিতার নির্দেশ দিয়েছি। ’


তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত শুধু মানুষ পুড়িয়ে মারে আর সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করে।

আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মানুষ মারা আর সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করাই বিএনপি-জামায়াতের চরিত্র।

 


শেখ হাসিনা বলেন, আমরা ক্ষমতায় এসে পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন কার্যক্রম শুরু করি। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকায় আজ বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে।


তিনি বলেন, রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিএনপি তাদের আখের গুছিয়েছে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগ সরকারের লক্ষ্য ঠিক রেখে বাস্তবসম্মত উদ্যোগ গ্রহণের কারণেই দেশের উন্নতি হচ্ছে।


উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের যোগ্যতা অর্জন করায় বৈঠকের শুরুতে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যবৃন্দ। এতে মোহাম্মদ নাসিম, লে. কর্নেল (অব) ফারুক খান, সাহারা খাতুন, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, আবদুল মান্নান খান, নুরুল ইসলাম নাহিদ, ড. আবদুর রাজ্জাকসহ কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

 


Top