বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় হট লাইন খুলেছে বাংলাদেশ হাইকমিশন | daily-sun.com

বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় হট লাইন খুলেছে বাংলাদেশ হাইকমিশন

ডেইলি সান অনলাইন     ১২ মার্চ, ২০১৮ ১৭:৪০ টাprinter

বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় হট লাইন খুলেছে বাংলাদেশ হাইকমিশন

 

নেপালের কাঠমান্ডু ত্রিভূবন বিমান বন্দরে (টিআইএ) ইউএস বাংলার বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় হট লাইন খুলেছে কাঠমান্ডুস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন। যে কোন তথ্যের জন্য ওই নাম্বারে যোগাযোগ করতে বলা হয়ছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

 

নাম্বার দুটি হলো - মোহাম্মদ আল আলামুল ইমাম, কাউন্সেলর (মোবাইল: +৯৭৭৯৮১০১০০৪০১); অসিত বরন সরকার, ফার্স্ট সেক্রেটারি (মোবাইল: +৯৭৭৯৮৬১৪৬৭৪২২)


এদিকে বিধ্বস্ত হওয়া বিমানে ৩৩ জন বাংলাদেশি যাত্রী ছিল বলে জানিয়েছে ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষ। সোমবার (১২ মার্চ) বিকালে ঢাকায় গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইমরান আসিফ। তিনি আরও বলেন, ‘হতাহতের বিষয়টি এখনও নিশ্চিত নয়। ফ্লাইটে ৬৫ জন বয়স্ক, দুই শিশু এবং পাইলট ও ক্রু চারজন ছিলেন। তাদের মধ্যে ৩৩ জন বাংলাদেশি, ১ জন মালদ্বীপ, ১ জন চাইনিজ বাকিরা নেপালির যাত্রী। ’


ঢাকা থেকে নেপালের কাঠমান্ডুর উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া ইউএস বাংলার ওই বিমানটি কাঠমান্ডু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সোমবার বেলা ২টা ২০মিনিটে বিধ্বস্ত হয় । বিমানের থাকা ৭১ যাত্রী ও ক্রর মধ্যে এ ৫০ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে বিভিন্ন গণমাধ্যম। এছাড়া অপর কয়েক জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।


যুক্তরাজ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি ইনডিপেন্ডেন্টস্থানীয় প্রতিনিধির মাধ্যমে জানাচ্ছে, বিমানটি কাঠমান্ডু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়ে (দুই নং প্ল্যাটফর্ম) থেকে পাশের ফুটবল খেলার মাঠে বিধ্বস্ত হয়।


সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, প্লেনটি বোম্বার্ডিয়ার ড্যাশ ৮ কিউ৪০০ মডেলের এস২-এজিইউ। বাইরে পাখাবিশিষ্ট এ ধরনের প্লেনে সর্বোচ্চ ৭৮টি আসন থাকে।


নেপালের পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব সুরেশ আচার্য্য জানিয়েছেন, প্লেনটিতে ৬৭ আরোহী ছিলেন। দুর্ঘটনাস্থল থেকে ১৭ জনকে উদ্ধার করে নিকটস্থ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 


Top