সদ্য বিবাহিত স্ত্রীর আবার বিয়ে দিলেন স্বামী | daily-sun.com

সদ্য বিবাহিত স্ত্রীর আবার বিয়ে দিলেন স্বামী

ডেইলি সান অনলাইন     ১২ মার্চ, ২০১৮ ১৪:১০ টাprinter

সদ্য বিবাহিত স্ত্রীর আবার বিয়ে দিলেন স্বামী

মাত্র এক সপ্তাহ আগে বিয়ে হয়েছিল দু’জনের। দাম্পত্যজীবন ঠিক মতো দানা বাঁধারও সময় পায়নি।

শনিবার নববিবাহিত সেই স্ত্রীরই বিয়ে দিলেন তাঁর স্বামী! শনিবার এই ঘটনা ঘটেছে  ভারতের ওড়িশার রাউরকেল্লার সুন্দরগড় জেলায়। একটি সর্বভারতীয় ইংরেজি দৈনিকের খবর অনুযায়ী, সেখানকার পামারা গ্রামের বাসিন্দা বাসুদেব টাপ্পো নিজের স্ত্রীরই বিয়ে দিয়ে রীতিমতো সাড়া ফেলে দিয়েছেন।

 

স্থানীয় সূত্রে খবর, গত ৪ মার্চ ২৮ বছরের বাসুদেবের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল ঝাড়সুগুদার বাসিন্দা ২৪ বছর বয়সি এক তরুণীর। সম্বন্ধ করে, স্থানীয় রীতি মেনে দু’জনের বিয়ে হয়েছিল। যদিও, আইনি কোনও প্রক্রিয়া মেনে বিয়ে হয়নি।  

 

বিয়ের পরেই অবশ্য গল্পে অন্য মোড় আসে। গত শনিবার নববিবাহিত তরুণীর পরিচিত পরিচয় দিয়ে তিন যুবক বাসুদেবের বাড়িতে আসেন। তাঁদের মধ্য একজন নিজেকে তরুণীর কাকাতো ভাই বলে পরিচয় দেন। এর কিছুক্ষণ পরে বাসুদেবকে নিয়ে গ্রামে ঘুরতে বেরিয়ে যান দুই যুবক।

কিন্তু ওই  চাচাতো ভাই বাসুদেবের বাড়িতেই থেকে যান।

 

অভিযোগ, তখনই বাসুদেবের স্ত্রীর সঙ্গে ওই যুবককে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখে ফেলেন কয়েকজন গ্রামবাসী। যুবককে ঘিরে ধরে মারধর শুরু করেন তাঁরা। তখনই বাসুদেবের স্ত্রী স্বীকার করে নেন, তুতো ভাই নন, ওই যুবক আসলে তাঁর প্রাক্তন প্রেমিক। বিয়ের আগে দু’জনের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু তরুণীর বাড়ি থেকে সেই সম্পর্ক মেনে নেয়নি।

 

বিষয়টি জানতে পেরে বাসুদেব সিদ্ধান্ত নেন, স্ত্রীর প্রেমিকের সঙ্গেই তাঁর বিয়ে দেবেন। এর পরে শ্বশুরবাড়ির লোকজনকেও ডেকে পাঠান বাসুদেব। খবর দেওয়া হয় স্ত্রীর প্রেমিকের বাড়িতেও।  

বাসুদেবের কথায়, তিনি যদি এই সিদ্ধান্ত না নিতেন, তাহলে তিনটি জীবন নষ্ট হতো। বাসুদেবের মাও ছেলেকে সমর্থন করেছেন। তাঁর মা সানিবারি টাপ্পোর কথায়, ‘‘ছেলে এই সিদ্ধান্ত না নিলে আমাদের জীবনে অশান্তি আরও বাড়ত। ’’ একইভাবে বাসুদেবের পাশে দাঁড়িয়েছে গোটা গ্রাম। নিজের সাধ্যমতো বেশ জাঁকজমক করেই নিজের স্ত্রীর বিয়ে দেন বাসুদেব। যাঁরা কদিন আগেই বাসুদেবের বিয়ের নেমতন্ন খেয়ে গিয়েছিলেন, তাঁদের মধ্যে অনেকেই ফের বাসুদেবের স্ত্রীর বিয়েতে নিমন্ত্রিত ছিলেন। এমন নেমতন্ন খেয়ে স্বভাবতই বেশ অবাক তাঁরাও!

 

আর যিনি বাসুদেবের সৌজন্যে নিজের মনের মানুষকে জীবনসঙ্গী হিসেবে পেলেন, সেই তরুণীর কথায়, ‘‘ওঁর অবদান আমরা কোনওদিন ভুলতে পারব না। ’’

 


Top