রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে লিসা কার্টিস | daily-sun.com

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে লিসা কার্টিস

ডেইলি সান অনলাইন     ৩ মার্চ, ২০১৮ ১৪:০০ টাprinter

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে লিসা কার্টিস

 

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনাবাহিনীসহ বিভিন্ন বাহিনীর দমন-নিপীড়নের মুখে পালিয়ে এসে বাংলাদেশের কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের অবস্থা স্বচক্ষে দেখতে ক্যাম্প পরিদর্শন করছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক নিরাপত্তা উপদেষ্টা লিসা কার্টিস। শনিবার (৩ মার্চ) সকাল ৮টার দিকে তিনি গাড়িযোগে টেকনাফের শামলাপুর অস্থায়ী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন যান।

এসময় তিনি মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সাথে আলাপ করেন। এরপর সকাল ১০টার দিকে টেকনাফের কেরুনতলী প্রত্যাবাসনের জন্য তৈরি ট্রানজিট ঘাট পরিদর্শন করেন।

 
সেখান থেকে গাড়িযোগে তিনি বেলা ১২টার দিকে উখিয়ার টিভি কেন্দ্র সংলগ্ন ইউএনএইচসিআরের (UNHCR) পরিচালনাধীন ট্রানজিট ক্যাম্পে যান। সেখানে তিনি রোহিঙ্গাদের দেয়া স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম পরিদর্শন করেন ও রোহিঙ্গাদের সাথে আলাপ করেন। এরপর তিনি উখিয়ার বালুখালী ক্যাম্প পরিদর্শনে যান।


এসময় তার সাথে ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা ব্লুম বাণিকার্ট।


ট্রাম্পের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক নিরাপত্তা উপদেষ্টা লিসা কার্টিস তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে শুক্রবার (২ মার্চ) সকালে ঢাকায় পৌঁছেছেন। ট্রাম্প প্রশাসনের এক বছরের বেশি সময়কালে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ঢাকায় উচ্চপর্যায়ের কোনো ব্যক্তির এটিই প্রথম সফর।


সফরকালে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারিক আহমেদ সিদ্দিক এবং পররাষ্ট্রসচিব শহীদুল হকের সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে জানা গেছে।


এর আগে সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট অ্যালেন বেরসে, ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো, তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদ্রিম, তুরস্কের ফার্স্ট লেডি এমিনে এরদোয়ান, জর্ডানের রানী রানিয়া আল আব্দুল্লাহ, মালয়েশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী আহমদ জাহিদ হামিদি, যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন, জাতিসংঘ মহাসচিবের যৌন সহিংসতাবিষয়ক বিশেষ দূত প্রমীলা প্যাটেন, মার্কিন ডেমোক্রেটিক সিনেটর জেফ মার্কলে, রিচার্ড ডার্বিন, কংগ্রেসের প্রতিনিধি ভেটি মেকলাম, জেন সেকস্কি, ডেভিট সিচেলিন, মার্কিন রাষ্ট্রদূত মাসিয়া বার্ণিকাট, জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থার বিশেষ দূত ইয়াং হি লি, ভারতে নিযুক্ত বিশ্বের ১৫টি দেশের ১৯ জন দূত, ইইউসহ জাপান, জার্মান ও সুইডেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেতনো মারসুদি, রাখাইন অ্যাডভাইজারি কমিশনের প্রতিনিধি দল ছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধানরা কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করেছেন।


এদের মধ্যে গত ৬ ফেব্রুয়ারিই কক্সবাজারের উখিয়ার কুতপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট অ্যালেন বেরসে এবং গতকাল ১০ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন।


এছাড়া ১১ ফেব্রুয়ারি ১১ সদস্যবিশিষ্ট ইউরোপীয় পার্লামেন্টের একটি প্রতিনিধি দল রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন। ২৫ ফেব্রুয়ারি রবিবার বিকেলে কুতুপালং ও মধুরছড়া ক্যাম্প এবং ২৬ ফেব্রুয়ারি সোমবার উখিয়ার বালুখালী, থাইংখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন নোবেল জয়ী তিন নারী। তারা রোহিঙ্গা নিধনে জড়িত থাকার অভিযোগে শান্তিতে নোবেল বিজয়ী দেশটির ক্ষমতাসীন দলের নেত্রী অং সান সুচিকে দায়ী করেন। তার পদত্যাগ এবং আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের দাবি জানান।  


নোবেল বিজয়ী এই তিন নারী হলেন, ইরানের শিরিন এবাদি, ইয়েমেনের তাওয়াক্কুল কারমান ও যুক্তরাজ্যের মেরেইড ম্যাগুয়ার।

 


Top