জেলে থেকে গুলশানের সুবিধা চাইলে তা দেয়া সম্ভব নয়: কাদের | daily-sun.com

জেলে থেকে গুলশানের সুবিধা চাইলে তা দেয়া সম্ভব নয়: কাদের

ডেইলি সান অনলাইন     ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ১৩:৫৯ টাprinter

জেলে থেকে গুলশানের সুবিধা চাইলে তা দেয়া সম্ভব নয়: কাদের

 

জেলে থেকে গুলশানের সুযোগ-সুবিধা চাইলে তা দেয়া সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বিএনপি নেত্রী কি কারাগারে গুলশানের বাড়ির সুযোগ-সুবিধা চান? তিনি যে এতিমের টাকা আত্মসাতের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত আসামি কেন ভুলে যাচ্ছেন? উনাকে জেলকোড অনুযায়ী সকল সুযোগ-সুবিধা দেয়া হবে। জেলে থেকে গুলশানের সুযোগ-সুবিধা চাইলে তা দেয়া সম্ভব নয়।


সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) কক্সবাজারের লিংক রোড এলাকায় শহীদ এ টি এম জাফর আলমের নামে নির্মিত স্মৃতিফলক উদ্বোধন করে ওবায়দুল কাদের একথা বলেন।


তিনি বলেন, ‘একটি দুর্নীতি মামলার রায় নিয়ে দেশে-বিদেশে যে অরাজকতার চেষ্টা করা হয়েছে, তা শুধু বিএনপির পক্ষেই সম্ভব। কারণ, তারাই একমাত্র দল যারা দুর্নীতি ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে আসছে।’


বলেন, দুর্নীতিবাজদের রক্ষা করতে রাতারাতি গঠনতন্ত্রের ৭ ধারা বাতিল করেছে।


জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফেরাতে আন্তর্জাতিক প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, লন্ডনে বাংলাদেশ দূতাবাসে তারেক রহমানের নির্দেশে হামলা হয়েছে। তার নির্দেশেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি ভাঙচুর করা হয়েছে। দূতাবাসে হামলার বিষয়টি ইন্টারপোল সদর দফতরে জানানো হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে এবং দণ্ডিত ব্যক্তিকে দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে আন্তর্জাতিক প্রক্রিয়া চলছে।


ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি ভাঙার জন্য দলটির নেতারাই যথেষ্ট। অন্যরা কেন তাদের দলে ভাঙন ধরাবে? তারা কি এসব কাজ কম পারেন? অতীতে তাদের দল ভাঙার নজির আমরা দেখেছি।


এ সময় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার হাজিরা শেষে ফেরার পথে রাজধানীতে পুলিশের প্রিজনভ্যানে হামলার ঘটনায় বিচার করা হবে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।


এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, স্থানীয় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি, সাইমুম সরওয়ার কমল, আশেক উল্লাহ রফিক, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান প্রমুখ।


প্রসঙ্গত, গত ৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে পুরান ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় ঘোষণা করেন। রায়ে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর এবং সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদণ্ডাদেশ এবং দুই কোটি ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।


খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায় কেন্দ্র করে গত বুধবার যুক্তরাজ্য বিএনপির বিক্ষোভ থেকে লন্ডনে বাংলাদেশ দূতাবাসে ভাঙচুর চালানো হয়। এ সময় ক্ষুব্ধ হয়ে কিছু মানুষ ভেতরে ঢুকে শেখ হাসিনা ও শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি খুলে নিয়ে ভাঙচুর করে।

 


Top