‘হাবীব-উন নবী সোহল আটক হননি, নিরাপদে আছেন’ | daily-sun.com

‘হাবীব-উন নবী সোহল আটক হননি, নিরাপদে আছেন’

ডেইলি সান অনলাইন     ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ১৭:৪৫ টাprinter

‘হাবীব-উন নবী সোহল আটক হননি, নিরাপদে আছেন’

 

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবীব-উন নবী খান সোহল আটক হননি। তিনি রাজধানীতেই আছেন এবং নিরাপদে আছেন।

বিকেলে এমনটিই জানালেন স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক দফতর সম্পাদক এবং সোহেলের ব্যক্তিগত সহকারী আখতারুজ্জামান বাচ্চু। তিনি বলেন, ‘সোহেল ভাই ‘সেভ’ আছেন, নিরাপদে আছেন। তিনি আটক হননি।’  


এর আগে মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে আখতারুজ্জামান বাচ্চুই গণমাধ্যমকে বলেন, সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত পৌনে ৩টার দিকে রাজধানীর মালিবাগ এলাকা থেকে হাবীব-উন নবী খান সোহলকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। 


এরপর নয়াপল্টন দলের কার্যালয়ে সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, ‘হাবীব-উন নবী সোহেলকে ডিবি পুলিশ তুলে নিয়ে গেছে। তার কোনো সন্ধান আমরা পাচ্ছি না।’


তিনি বলেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে গোয়েন্দা পুলিশ তুলে নিয়ে গেছে। মঙ্গলবার ভোরে খালেদা জিয়ার গাড়িবহর থেকে মালিবাগের বাসায় ফেরার পথে তাকে তুলে নেওয়া হয়েছে। সোহেল কোথায় আছে, কিভাবে আছে কেউ জানে না। কেউ বলছে তাকে মালিবাগ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে, কেউ বলছে তাকে তুলে নেওয়া হয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে বিষয়টি অস্বীকার করা হয়েছে।  তিনি বলেন, সারাদেশে এখন পর্যন্ত বিএনপির ১১০০ শতাধিক নেতাকর্মী গ্রেফতার করা হয়েছে।


এসময় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেলের সন্ধান দাবি করেন রিজভী। তাকে আটক করা হলে বা না হলেও অবস্থান পরিষ্কার করতে বলেন তিনি।


তবে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা মীর শরাফত আলী শফুও গণমাধ্যমকে জানান, ভাই (হাবীব-উন নবী খান সোহেল) ঢাকাতেই আছেন। নিরাপত্তার স্বার্থে প্রকাশ্যে আসছেন না।


২০১৪ সাল থেকে এখন পর্যন্ত হাবিব-উন নবী খান সোহেলের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় নাশকতার অভিযোগে ১৪৩টি মামলা রয়েছে। রাজধানীর পল্টন, মিরপুর, মতিঝিল, ডেমরা, আদাবর ও কালসী থানায় দায়ের হওয়া এসব মামলায় উচ্চ আদালত থেকে তিনি সম্প্রতি জামিনে মুক্তি পান।


গত ৩০ জানুয়ারি হাইকোর্ট মোড়ে পুলিশের প্রিজনভ্যানে হামলার ঘটনায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের তিনটি মামলারই আসামি তিনি।


আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় রায় হবে। এ রায়কে ঘিরে আন্দোলন গড়ে তুলতে সক্রিয় ছিলেন সোহেল। সম্প্রতি তিনি ঘোষণা দিয়েছিলেন যেসব বিএনপি নেতা আন্দোলনে মাঠে নামবেন না তাদের তিনি চুড়ি পরিয়ে দেবেন।

 


Top