আয়নার তুলনায় সেলফি-তে কেন আলাদা লাগে নিজেকে! | daily-sun.com

আয়নার তুলনায় সেলফি-তে কেন আলাদা লাগে নিজেকে!

ডেইলি সান অনলাইন     ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ১৫:৩৪ টাprinter

আয়নার তুলনায় সেলফি-তে কেন আলাদা লাগে নিজেকে!

স্মার্টফোন আসার পরে সাধারণ মানুষের জীবনে যে নানা ধরনের পরিবর্তন ঘটেছে, তার মধ্যে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বোধহয় ‘সেলফি’।

স্মার্টফোনের ফ্রন্ট-ক্যামেরার দৌলতে এখন নিজেই নিজের ছবি তুলতে পারেন স্মার্টফোন ইউজাররা।

ফলে, যখন খুশি, যেখানে খুশি ছবি তুলতে দেখা যায় আবালবৃদ্ধবনিতাকে।  

তবে, খুঁটিয়ে দেখলে বোঝা যায় যে, কারও তুলে দেওয়া ছবির তুলনায় সেলফি অনেক বেশি বাঁকাচোরা হয়। এমনই তথ্য প্রকাশ পেয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম হাফিংটন পোস্ট-এর প্রতিবেদনে। মূলত ৩টি কারণ দর্শানো হয়েছে এমন বাঁকা ছবির জন্য— 

 

১। আয়নায় প্রতিবিম্বই এক্সপেক্ট করে সকলে— মানুষের মুখের প্রোফাইল দু’দিকে সমান হয় না। আর ছোটবেলা থেকেই আমরা আয়নায় নিজেদের দেখে অভ্যস্ত। এবং আমরা এটাই মনে করি যে, অন্যরাও আমাদের আয়নার প্রতিফলনের মতোই দেখে। কিন্তু, আদতে তা হয় না সেলফি তোলার সময়। ফলে, সেখানে নিজেকে খানিক বাঁকাই লাগে।

সে দিক থেকে দেখতে গেলে এমনটা বলাই যায় যে, আয়না আসলে মিথ্যে, বললেন কানাডার এক বিশিষ্ট চিত্রগ্রাহক জে পেরি।

তবে, বর্তমানের অনেক স্মার্টফোনেই ‘মিরর ইমেজ’ অপশন রয়েছে।

 

২। পরিচিত মুখই দেখে অভ্যস্ত— মানুষ সারাক্ষণ যা দেখে, তাতেই অভ্যস্ত হয়ে যায়। এবং সেটাই পছন্দ করতে শুরু করে। যে কারণে, ছোটবেলা থেকে আয়নায় নিজের যে প্রতিবিম্বের সঙ্গে আমরা পরিচিত থাকি, সেটাই আমাদের ভাল লাগে। এমনই কথা বলেছেন ‘মিডিয়া সাইকোলজি রিসার্চ সেন্টার’-এর ডায়রেক্টর পামেলা রাটলেজ।  

সেলফি তুললে, স্বাভাবিকভাবেই প্রোফাইল বদলে যায়। এবং তা পছন্দ মতো হয় না।

 

৩। লেন্সের খেলা— ক্যামেরার লেন্সের উপরেও অনেক সময় ছবির চরিত্র বদলে যায়। নিজেকে খানিক রোগা দেখানোর জন্য লম্বা লেন্স ব্যবহার করাই শ্রেয়। খুব কাছ থেকে ছবি তুললে, মুখের যে অংশ লেন্সের কাছাকাছি থাকে, সেই অংশই প্রভাব ফেলে ছবিতে। যেমন, নাক। এবং সেলফি তোলার সময় সকলেই লেন্সের খুব কাছে থাকে। তাই ছবি খানিক বাঁকাচোরা ওঠে। এমন কথাই জানালেন চিত্রগ্রাহক জে পেরি।

 

দিনের শেষে সামনের মানুষটি তো আপনাকে তার চোখ দিয়েই দেখেন, এবং সেটাই পছন্দ, বা অপছন্দ করেন। তার সঙ্গে সেলফির কোনও যোগসূত্র নেই। আপনি সেলফি-মগ্ন থাকুন। ভাল লাগলে সেই ছবি শেয়ার করুন সোশ্যাল মিডিয়ায়, না হলে সোজা ডিলিট।

তবে, খেয়াল রাখুন, সেলফি তুলতে গিয়ে যেন কখনওই কারও কোনও অসুবিধা না হয়। এবং তার থেকেও গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার, নিজের কোনও বিপদ না ঘটে।

 


Top