শুরু হতে যাচ্ছে “স্বপ্ন দেখে চোখ” | daily-sun.com

জিটিভি, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড এবং সাইটসেভার ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে

শুরু হতে যাচ্ছে “স্বপ্ন দেখে চোখ”

ডেইলি সান অনলাইন     ২৯ জানুয়ারী, ২০১৮ ২০:৪৮ টাprinter

শুরু হতে যাচ্ছে “স্বপ্ন দেখে চোখ”

 

 সম্প্রতি স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক ও গাজী স্যাটেলাইট টেলিভিশন লিমিটেডের মধ্যে যৌথ উদ্যোগে “স্বপ্ন দেখে চোখ” নামে একটি প্রকল্পের সমঝোতা চুক্তি সাক্ষরিত হয়। সাইটসেভার ফাউন্ডেশন এর কারিগরি সহায়তায় এই প্রকল্পটি দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের দৃষ্টিশক্তি ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করবে এবং প্রতিরোধযোগ্য অন্ধত্ব সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করবে। জিটিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব আমান আশরাফ ফায়েজ এবং স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, বাংলাদেশ-এর সিইও জনাব নাসের এজাজ বিজয় সমঝোতা চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। 

 

“যা দেখতে চান পাবেন” এই শ্লোগান এবং প্রত্যয়কে ধারণ করে গাজী স্যাটেলাইট টেলিভিশন লিমিটেড দর্শকদের জন্য নিয়মিত নতুন ধারার অনুষ্ঠান সম্প্রচার করে যাচ্ছে। “প্রতিটি মানুষেরই রয়েছে দেখার অধিকার”, জিটিভির এই বিশ্বাস এবং সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে এই প্রকল্পের যাত্রা শুরু। 

এই প্রকল্পটি স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক এর “সিইং ইজ বিলিভিং” এর ১৫ বছর উদ্যাপন এরও একটি অংশ। এই উদ্যোগটি বিশ্বজুড়ে সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর মধ্যে ১৬০টি চক্ষুসেবা প্রকল্পে অর্থপ্রদানের মাধ্যমে প্রায় ১৫ কোটির উপরে মানুষের সহায়তা করেছে। 

 

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক এর সৌজন্যে জিটিভি ও সাইটসেভারস এর এই উদ্যোগে ইতিমধ্যে ক্রিকেটভক্ত সামিউল এবং কবির, খুলনার ফেরদৌসি, নলিনকান্তিসহ আরও অনেকেই ফিরে পেয়েছে তাদের দৃষ্টিশক্তি। “স্বপ্ন দেখে চোখ” এর হাত ধরে তারা পৌঁছেছে স্বপ্নের দোরগোড়ায়, ফিরে পেয়েছে স্বাভাবিক জীবন। 

এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জিটিভি সম্প্রচার করবে সেই স্বপ্নপূরণের গল্পগুলো যেখানে দৃষ্টির আলো থেকে বঞ্চিত মানুষগুলো সত্যি সত্যি দেখবে যা তারা দেখতে চায়। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড এর সৌজন্যে “স্বপ্ন দেখে চোখ” এর সম্প্রচার শুরু হবে ৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ থেকে প্রতি রবিবার রাত ৯ টায়। এই অনুষ্ঠানের ব্যবস্থাপনায় আছেন ইসমাইল হোসেন এবং পর্ব পরিচালনায় মাহাদি হাসান। 

 

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের সিইও জনাব নাসের এজাজ বিজয় বলেন, “বাংলাদেশে প্রতিরোধযোগ্য দৃষ্টিহীনতার বিরুদ্ধে সংগ্রামে আমাদের ব্যাংক অঙ্গীকারাবদ্ধ। প্রকৃতপক্ষে বিশ্বব্যাপী ‘সিইং ইজ বিলিভিং’ এর অগ্রযাত্রার সূচনা হয় বাংলাদেশে ২০০৩ সালে, ইস্পাহানী ইসলামিয়া আই ইন্সটিটিউট এ্যান্ড হসপিটালে একটি অপারেশন থিয়েটার এবং একটি শিশুদের ওয়ার্ড স্থাপনার মধ্য দিয়ে। এখন এই প্রশংসনীয় উদ্যোগের সহযাত্রী হতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত।”

 

উক্ত সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের সময় সাইটসেভারস এর কান্ট্রি ডিরেক্টর জনাব খন্দকার আরিফুল ইসলাম দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের চিকিৎসায় সহায়তা করার জন্য জিটিভির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।  জিটিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব আমান আশরাফ ফায়েজ বলেন, “জিটিভির দর্শকরা যা দেখতে চান তা দেখতে পাবেন” এমনটি দৃষ্টি-প্রতিবন্ধী হলেও। তাদের ইচ্ছানুযায়ী দেখার অধিকার নিশ্চিত করতে জিটিভি সবসময় পাশে থাকবে।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের কান্ট্রি হেড অব কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স বিটপী দাশ চৌধুরী, জিটিভির প্রযোজক মাহাদি হাসান সহ আরও অনেক সিনিয়র কর্মকর্তাগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। 


Top