আখেরি মোনাজাতে সমাপ্ত বিশ্ব ইজতেমা, মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা | daily-sun.com

আখেরি মোনাজাতে সমাপ্ত বিশ্ব ইজতেমা, মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা

ডেইলি সান অনলাইন     ২১ জানুয়ারী, ২০১৮ ১০:৫৪ টাprinter

আখেরি মোনাজাতে সমাপ্ত বিশ্ব ইজতেমা, মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা

 

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ তীরে শুরু হওয়া তাবলিগ জামাতের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার শেষ পর্ব। মোনাজাতে বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে দোয়া করা হয়।

রবিবার (২১ জানুয়ারি) সকাল ১০টা ২০ মিনিটের দিকে আখেরি মোনাজাত শুরু হয়। প্রায় ২৫ মিনিট বাংলায় মোনাজাত পরিচালনা করেন কাকরাইল মসজিদের ইমাম, তাবলিগের অন্যতম শুরা সদস্য হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ জুবায়ের।

 
তিনি মোনাজাতে মুসলিম উম্মাহর সুখ, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ কামনা করেন। মুসলিমদের মধ্যে ঐক্যের কথা বলেন। দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি চেয়ে ইজতেমা কবুলের জন্য দোয়া করেন।


আখেরি মোনাজাতের আগে বাদ ফজর প্রস্তুতিমূলক বয়ান অনুষ্ঠিত হয়। এরপর হেদায়েতি বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা মো. আব্দুল মতিন। হেদায়েতি বয়ান শেষে শুরু হয় আখেরি মোনাজাত।


এদিকে মোনাজাতে অংশ নিতে ইজতেমা প্রাঙ্গণে ঢল নেমেছে লাখো মানুষের। ময়দানের আশপাশের রাস্তায়ও অবস্থান নিয়েছেন বিপুলসংখ্যক মানুষ। এই মোনাজাতে অংশ নিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

 

আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে আজ ভোর থেকেই শীত উপেক্ষা করে লাখো মুসল্লি মহাসড়কে হেঁটে ও ট্রেনে করে টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে গিয়ে সমবেত হয়েছেন। বিপুলসংখ্যক নারী মুসল্লিও মোনাজাতে অংশ নিতে ইজতেমার আশপাশের সড়কে সকাল থেকেই অবস্থান নেন। এ সময় তারা ইসলামের আমল, আকিদা ও দাওয়াত বিষয়ে দেশি-বিদেশি মুসল্লিদের বয়ান শোনেন। আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা।


বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হওয়ার পর চার দিন বিরতি দিয়ে গত শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) শুরু হয় ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। আজ আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে এবারের বিশ্ব ইজতেমা।


ইজতেমা সফল করতে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর পক্ষ থেকে সাত স্তরের নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে।


এদিকে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিন গতকাল শনিবার ঢাকার কেরানীগঞ্জের হাজী শহীদুল ইসলাম (৬৭) ও জামালপুরের ইসলামপুর থানা এলাকার মুসল্লি হাজী মোবারক হোসেন (৬৫) মৃত্যুবরণ করেন।


এর আগে ইজতেমার প্রথম পর্বে একজন বিদেশিসহ (মালয়শিয়ার মুসল্লি) পাঁচ মুসল্লি মারা যান।


মুসল্লিদের চাপ কমাতে ২০১১ সাল থেকে দুই পর্বে বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। গত ১২ জানুয়ারি হয় প্রথম পর্বের মোনাজাত।


আগামী বছর বিশ্ব ইজতেমা শুরুর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ১১ জানুয়ারি। তাবলিগ মুরব্বিদের এক পরামর্শ সভায় ওই তারিখ নির্ধারণ করা হয় বলে ইজতেমার মুরব্বি প্রকৌশলী মো. গিয়াস উদ্দিন জানান। তিনি বলেন, তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বিদের এক সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক আগামী বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব ১১, ১২ ও ১৩ জানুয়ারি এবং দ্বিতীয় পর্ব ১৮, ১৯ ও ২০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।

 


Top