‘পদ্মাবত’ ছবির প্রযোজক আদালতের দ্বারস্থ | daily-sun.com

‘পদ্মাবত’ ছবির প্রযোজক আদালতের দ্বারস্থ

ডেইলি সান অনলাইন     ১৭ জানুয়ারী, ২০১৮ ১৬:৩৭ টাprinter

‘পদ্মাবত’ ছবির  প্রযোজক আদালতের দ্বারস্থ

‘পদ্মাবত’ ছবির ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত পাওয়ার জন্য ভারতের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টে গেলেন দুই প্রযোজক অজিত আন্ধারে ও সঞ্জয় লীলা বানসালি। তাঁদের মতে, ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শনীর ব্যাপারে অনুমতি দিয়েছে সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন (সিবিএফসি)। কিন্তু তা উপেক্ষা করে দেশটির বিভিন্ন রাজ্য সরকার ছবিটির প্রদর্শনীর ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা জারি করছে। জানা গেছে, শুনানির জন্য মামলাটি গ্রহণ করেছেন সর্বোচ্চ আদালত। আর আদালত থেকে মামলাটির দ্রুত শুনানির আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

 

আগেই জানানো হয়েছে ২৫ জানুয়ারি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে ‘পদ্মাবত’। তবে ছবিটি নিজেদের রাজ্যে মুক্তি দিতে রাজি নন একাধিক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। এরই মধ্যে ‘পদ্মাবত’ ছবিকে গুজরাট, রাজস্থান, হিমাচল, মধ্য প্রদেশ ও হরিয়ানায় নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পাশাপাশি ছবিটি যাতে মুক্তি না পায়, এ ব্যাপারে নানা হুমকি দিচ্ছে রাজপুতদের সংগঠন করণি সেনা।

‘পদ্মাবতী’ নামে নয়, ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে ‘পদ্মাবত’ নামে। সেই সঙ্গে সিবিএফসির নির্দেশনা অনুযায়ী ছবিতে পাঁচটি পরিবর্তন করেছেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালি।

 

সিবিএফসির সিদ্ধান্তে সন্তুষ্ট হতে পারেনি রাজস্থানের মেওয়ারের রাজপরিবার। এই রাজপরিবারের তিন সদস্য ভারতের কেন্দ্রীয় তথ্য সম্প্রচারমন্ত্রী এবং তথ্য প্রতিমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানিয়ে বলেছেন, সিবিএফসির তাঁদের কোনো মতামত নেয়নি; বরং রাজপরিবারের তীব্র আপত্তি অগ্রাহ্য করে প্রদর্শনের ছাড়পত্র দিয়েছে চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড। রাজপরিবারের সদস্য মহেন্দ্র সিং কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি এবং প্রতিমন্ত্রী রাজ বর্ধন সিং রাঠোরকে চিঠি দিয়ে বলেছেন, বানসালি তাঁর ছবিতে ঐতিহাসিক চরিত্রগুলোকে যেভাবে তুলে ধরেছেন, তা সম্পূর্ণ ভুল। এর ফলে রাজপুত সমাজে ভুল বার্তা পৌঁছে যাবে।

 


Top