বিধবা মায়ের বিয়ে দিয়ে নজির গড়ল মেয়ে | daily-sun.com

বিধবা মায়ের বিয়ে দিয়ে নজির গড়ল মেয়ে

ডেইলি সান অনলাইন     ১১ জানুয়ারী, ২০১৮ ১৮:৪০ টাprinter

বিধবা মায়ের বিয়ে দিয়ে নজির গড়ল মেয়ে

 ভারতের জয়পুরের সংহিতা সত্যিই জয় পেলেন। মায়ের মুখে হাসি ফোটানোর জয়। সংহিতা আগারবাল একটি বেসরকারি সংস্থার উচ্চপদে চাকরি করেন। ২০১৬ সালের মে মাসে তাঁর বাবা মুকেশ গুপ্ত আচমকাই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। একা হয়ে যান মা গীতা।

চাকরি সূত্রে সংহিতা থাকেন গুরুগ্রামে। সেখান থেকে প্রতিদিন মায়ের দেখাশোনা না করতে পারলেও নিয়মিত মাকে সঙ্গ দেওয়ার লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন। সুযোগ পেলেই ছুটে এসেছেন মায়ের কাছে। এবার মায়ের জন্য নতুন জীবনসঙ্গী খুঁজে দিলেন সংহিতা। সংবাদ মাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি নিজেই সেই সব কথা জানিয়েছেন।

 

গত আগস্ট মাসে ৫৩ বছরের মায়ের ফের বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন সংহিতা।

মায়ের সঙ্গে পরামর্শ না করেই একটি ম্যাট্রিমনিয়াল সাইটে গীতাদেবীর অ্যাকাউন্ট তৈরি করেন। সঙ্গে দিয়ে দেন নিজের ফোন নম্বর। কারণ, সংহিতা মনে করেন কোনও মানুষ সন্তানের সঙ্গে সব কিছু ভাগ করে নিতে পারেন না। প্রয়োজন হয় জীবনসঙ্গীর।

 

 

সংহিতা মায়ের অ্যাকাউন্ট তৈরি করতেই একের পরে এক আবেদন আসতে থাকে। অনেক বিপত্নিক পুরুষ যোগাযোগ করেন সংহিতার সঙ্গে। এর পরে গত সেপ্টেম্বর সবটা জানান মা গীতাদেবীকে। শুরুতেই রাজি হননি গীতা। আত্মীয়স্বজনরাও বেঁকে বসেন সংহিতার সিদ্ধান্ত শুনে।  

 

রক্ষণশীল পরিবারে এমন সিদ্ধান্তে সিলমোহর আদায় করা সহজ ছিল না। কিন্তু নিজের সিদ্ধান্তে অটল থেকে মায়ের বিয়ে পাকা করে ফেলেন সংহিতা। পাত্র— ৫৫ বছরের কে জে গুপ্ত। তাঁর স্ত্রী বিয়োগ হয় ২০১০ সালে।  

 

সব শেষে ডিসেম্বরের এক শীতের সন্ধ্যায় চার হাত এক হয়েছে। জয় পেয়েছেন জয়পুরের মেয়ে সংহিতা। সংহিতা জানিয়েছেন, বিয়ের পরে মায়ের মুখে নতুন হাসি, নতুন আলো দেখে খুশি হয়েছেন তিনি।

 


Top