পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের 'প্রবৃদ্ধি সহায়ক সাম্য' শীর্ষক কনফারেন্স | daily-sun.com

পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের 'প্রবৃদ্ধি সহায়ক সাম্য' শীর্ষক কনফারেন্স

প্রেস রিলিজ     ১১ জানুয়ারী, ২০১৮ ১৭:২১ টাprinter

 পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের 'প্রবৃদ্ধি সহায়ক সাম্য' শীর্ষক কনফারেন্স

 গত ৯ তারিখ মঙ্গলবার  পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অঙ্গীভূত প্রতিষ্ঠান ঢাকা স্কুল অব ইকোনমিক্স এর যৌথ উদ্যোগে 'প্রবৃদ্ধি সহায়ক সাম্য'- শীর্ষক একদিনব্যাপী কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয় । এতে তিনটি কর্ম অধিবেশনে মোট ৪২ টি প্রবন্ধ  উপস্থাপন করা হয়। কনফারেন্সে বক্তারা মন্তব্য করেন যে গত এক দশকে দেশের অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। তবে সুষম বণ্টন ব্যবস্থা ও আর্থিক অন্তর্ভুক্তি মুলক ব্যবস্থার জন্য  বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। অঞ্চল ভিত্তিক এলাকায় প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে প্রবৃদ্ধির সাম্য নির্ভর করতে হবে।  

 

এদিকে পিকেএসএফ কর্তৃক বাস্তবায়িত সমৃদ্ধি কর্মসূচী প্রবৃদ্ধি অর্জনের পাশাপাশি পিছিয়ে পড়া মানুষের জন্যেও কাজ করে এবং প্রকৃত সাম্য নিশ্চিতের জন্য কাজ করে বলে  পিকেএসএফ এর ডিএমডি (প্রশাসন) ড. মোঃ জসীম উদ্দিন মন্তব্য করেন।  

 

পিকেএসএফ-এর অপর ডিএমডি (কার্যক্রম) জনাব ফজলুল কাদের মন্তব্য করেন যে দেশের অগ্রযাত্রায় মাইক্রো এণ্টারপ্রিনিয়রশিপ গড়ে তোলা প্রয়োজন।

 

কনফারেন্সের সমাপনি অধিবেশনে পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের সভাপতি  ড. কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ মানুষের অধিকার নিশ্চিতের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি প্রাতিষ্ঠানিক  কাঠামো গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

 

পিকেএসএফ-এর কার্যক্রমে যে মানব কেন্দ্রিক উন্নয়নের মূলমন্ত্র অনুসরণ করা হয় তা উল্লেখ করে বলেন যে পিকেএসএফ-এর কার্যক্রম টেকসই  উন্নয়নের অভীষ্টের সাথে সরাসরি সম্পর্কিত। টেকসই  উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার মূলনীতি , সকলের অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিত করার উপর আলোকপাত করেন তিনি।

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর  ড. মোঃ আক্তারুজ্জামান প্রধান অতিথির বক্তব্যে আশা প্রকাশ করেন , সরকার যেভাবে দেশের  উন্নয়নে কাজ করে চলেছেন তা যেন সবার মধ্যে সবার মধ্যে সমভাবে বন্টিত হয়।  কনফারেন্সে উপস্থাপিত প্রতিটি পেপার বর্তমান সময়ের  খুবই প্রাসঙ্গিক উল্লেখ করে তিনি বলেন ছোট ছোট উদ্যোগ একটা একটা সময় অনেক বড় অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের জন্ম দেয়। দেশে বর্তমানে অর্থনৈতিক কাঠামোতে  মাইক্রো এণ্টারপ্রাইজের উন্নয়ন সময়ের দাবি উল্লেখ করে   ড. আক্তারুজ্জামান বলেন পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করে এণ্টারপ্রাইজের কাঠামোগত উন্নয়ন টেকসই উন্নয়নের পথকে প্রশস্থ করবে। তিনি আরও বলেন অর্থনৈতিক মুক্তির  দিকে দেশ ধাবিত হচ্ছে তবে সমতা নিশ্চিত না করলে তা টেকসই হবে না । ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নৈতিকতার স্খলন রোধের দিকে বিশেষ নজর দিতে হবে বলে উল্লেখ করেন।

 

কনফারেন্সে সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে পিকেএসএফ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মোঃ আব্দুল করিম বলেন যে, দেশের অগ্রগতি ও প্রগতিতে সহায়ক ভূমিকা পালনে পিকেএসএফ বদ্ধ পরিকর। গ্রামীণ  অর্থনীতির উন্নয়নের পাশাপাশি পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়ন নিশ্চিত করতে পিকেএসএফ কাজ করছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি আরও বলেন “ কাউকে বাদ দিয়ে নয়” -এই মূলমন্ত্রকে ধারণ করে পিকেএসএফ এসডিজি বাস্তবায়নে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে।  

 

কনফারেন্সে অধিবেশন সমুহে বক্তব্য রাখেন ঢাকা স্কুল অব ইকনমিক্স -এর প্রফেসর   ড. মুহম্মদ মাহবুব আলী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর মাহবুবা নাসরীন,   ড. এ কে এম  নজরুল ইসলাম ,  ড. সালমা সুলতানা,   ড. তৌহিদ রেজা নূর প্রমুখ ।

 

 


Top