ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না মাওলানা সাদ: ডিএমপি | daily-sun.com

ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না মাওলানা সাদ: ডিএমপি

ডেইলি সান অনলাইন     ১১ জানুয়ারী, ২০১৮ ১১:১৭ টাprinter

ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না মাওলানা সাদ: ডিএমপি

 

টঙ্গীর তুরাগ তীরে অনুষ্ঠেয় বিশ্ব ইজতেমা সুশৃঙ্খল ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করার জন্য দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের জিম্মাদার মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভি ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না। বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) সকালে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়ার বরাত দিয়ে ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায় গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।


তিনি বলেন, ‘আপাতত মাওলানা সাদ কাকরাইল মসজিদেই থাকছেন।’
 

এর আগে, ঢাকায় এসে বিক্ষোভের মুখে পড়েন মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভি। তিনি যাতে বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিতে না পারেন সেজন্য তাবলিগ জামাতের একটি অংশ বুধবার (১০ জানুয়ারি) সকাল থেকে বিমানবন্দরের সামনের সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে এবং বিমানবন্দর থেকে সিভিল এভিয়েশন হেড কোয়াটার্স গেট দিয়ে বের হওয়া সকল যানবাহনে তারা তল্লাশি চালান। এমনকি তল্লাশি চালানো হয় অ্যাম্বুলেন্সও। তবে তাদের নজর এড়িয়ে বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে মাওলানা সাদ তাবলিগের কাকরাইল শুরা কার্যালয়ে পৌঁছান।


এদিন, বিক্ষোভের আয়োজক নেতারা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, আমরা সরকারের সঙ্গে কথা বলে যাচ্ছি। তারপরও যদি দাবি না মানা হয়, তাহলে আগামী ২০ তারিখ পর্যন্ত লাগাতার অবরোধ কর্মসূচির ঘোষণা করা হবে।


উল্লেখ্য, বিতর্কিত ও আপত্তিকর মন্তব্যের কারণে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের অন্যতম আলেমগণ মাওলানা সাদ কান্ধলভীকে তাবলিগ জামাতের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমায় না আসার আহ্বান জানায়। শান্তি ও নিরাপত্তার স্বার্থে গত ৭ জানুয়ারি যাত্রাবাড়ীতে জামিয়া ইসলামিয়া দারুল উলুম মাদানিয়ায় অনুষ্ঠিত তাবলিগের শুরা সদস্য ও আলেমদের বৈঠকে এবারের ইজতেমায় মাওলানা সাদের না আসার সিদ্ধান্ত হয়। এর পরিবর্তে বৈঠকের ফয়সাল নিজামুদ্দিনের দুই পক্ষের প্রতিনিধিদের আসার সিদ্ধান্ত দেন।


এদিকে গত ৭ জানুয়ারি বাংলাদেশ তাবলিগ জামাতকে লেখা এক চিঠিতে মালয়েশিয়া তাবলিগের শূরা কর্তৃপক্ষ বিশ্ব ইজতেমা বাংলাদেশ থেকে সরিয়ে মালয়েশিয়ায় নেওয়ার হুমকি দিয়েছে। গাজীপুরের টঙ্গীতে তাবলিগ জামাতের উদ্যোগে অনুষ্ঠেয় ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমায় মাওলানা সাদকে ইজতেমার আমির ও ফয়সালের (সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী) পদ থেকে সরানো হলে এ পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে ওই চিঠিতে সতর্ক করা হয়।


আরও পড়ুন:

 

নেতৃত্বের কোন্দল: বাংলাদেশ থেকে বিশ্ব ইজতেমা সরিয়ে নেওয়ার হুমকি

 


Top