রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ সহায়তার প্রস্তাব ইসরাইলের, ঢাকার না | daily-sun.com

রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ সহায়তার প্রস্তাব ইসরাইলের, ঢাকার না

ডেইলি সান অনলাইন     ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৬:৩৪ টাprinter

রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ সহায়তার প্রস্তাব ইসরাইলের, ঢাকার না

 

রাখাইনে দেশটির সেনাবাহিনীসহ বিভিন্ন বাহিনীর নির্যাতনের মুখে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য ত্রাণ সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছে। কিন্তু, বাংলাদেশ সরকার সরাসরি তাদের প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল সূত্র এ তথ্য জানান। 


সূত্রটি জানায়, কূটনৈতিক শিষ্টাচারে কোনো দেশের প্রস্তাব গ্রহণ করতে না চাইলে সরাসরি না বলে পরোক্ষভাবে সংশ্লিষ্ট দেশকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু, ইসরাইলের বিষয়টি সম্প্রতি বাংলাদেশ সরাসরি নাকচ করে দিয়েছে।


ঢাকা থেকে ইসরাইলকে দেওয়া বার্তায় বলা হয়েছে, ইসরাইলের সঙ্গে বাংলাদেশের কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই। তাই ঢাকা এই প্রস্তাব কোনোভাবেই গ্রহণ করতে পারছে না। এছাড়া বিষয়টি রাজনৈতিকভাবেও স্পর্শকাতর। এমন অবস্থায় ঢাকা কোনোভাবেই এই প্রস্তাবে সম্মতি জানাতে পারছে না।


প্রসঙ্গত, ইসরাইলের সঙ্গে বাংলাদেশের কোনো ধরনের কূটনৈতিক সম্পর্ক না থাকায় কঠোর গোপনীয়তায় বিশেষ চ্যানেলে দেশটি গত নভেম্বরে এই সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছিল বলে জানা গেছে।


চলতি বছরের আগস্ট মাসে নতুন করে মিয়ানমারে মুসলিম রোহিঙ্গাদের ওপর বর্বর নির্যাতন শুরু হলে প্রাণ বাঁচাতে তারা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। এখন পর্যন্ত সাড়ে ছয় লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে এসে কক্সবাজারের একাধিক ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছে।


ইসরাইলের সঙ্গে যেকোনো ধরনের যোগাযোগ স্থাপন সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে বাংলাদেশের কূটনীতিকদের জন্য নিষিদ্ধ। বাংলাদেশের পাসপোর্টেও বিষয়টি আলাদভাবে উল্লেখ আছে। বাংলাদেশের নাগরিকরা ইসরাইল বাদে বিশ্বের যেকোনো দেশে যাওয়ার জন্য আবেদন করতে পারেন।


ইসরাইলের সঙ্গে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক না থাকলেও ২০১৪ সালে ফিলিপাইনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল (অব.) জন গোমেজ ইসরাইলের রাষ্ট্রদূত ম্যানাসে বরের সম্মানে নৈশভোজে মিলিত হয়েছিলেন। ওই বৈঠক নিয়ে ওঠা প্রশ্নের জবাবে রাষ্ট্রদূত জন গোমেজ জানিয়েছিলেন, তিনি ব্যক্তিগত খরচে ইসরাইলি দূতকে দাওয়াত করেছিলেন। কিন্তু, রাষ্ট্রদূতের এমন ব্যখ্যায় সন্তুষ্ট হতে পারেনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তখন ওই দূতকে ঢাকায় ডেকে সতর্ক করে দিয়েছিল মন্ত্রণালয়। এমনকি বলে দেওয়া হয়েছিল, ইসরাইলি কোনো নাগরিকের সঙ্গে হ্যান্ডশেক পর্যন্ত করা যাবে না।


ফিলিস্তিনে জোর করে উপনিবেশ গড়ে এখন ফিলিস্তিন জনগণকেই উদ্বাস্তু করছে ইহুদি ইসরাইল। সম্প্রতি মুসলমানদের পবিত্র নগরী জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী স্বীকৃতি দিয়ে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ইসরাইল বিভিন্ন মুসলিম দেশের নানা সমস্যার সময় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করে। কিন্তু, তাদের আহ্বানে সাড়া দেয় না বেশিরভাগ মুসলিম দেশ।


সম্প্রতি ইরাক-ইরান সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোতে ৭ দশমিক ৩ মাত্রার ভয়াবহ ভূমিকম্প হয়। এ সময় ইরানে ত্রাণ সহযোগিতার প্রস্তাব দিয়েছিল ইসরাইল। কিন্তু, তেহরাও সে প্রস্তাব সরাসরি নাচক করে দিয়েছিল।


-সূত্র: পরিবর্তন ডট কম

 


Top