প্রতিশোধমূলক হামলা চালাতে বিস্ফোরণ, দাবি মার্কিন পুলিশের | daily-sun.com

প্রতিশোধমূলক হামলা চালাতে বিস্ফোরণ, দাবি মার্কিন পুলিশের

ডেইলি সান অনলাইন     ১২ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১০:৩৮ টাprinter

প্রতিশোধমূলক হামলা চালাতে বিস্ফোরণ, দাবি মার্কিন পুলিশের

 

প্রতিশোধমূলক হামলা চালাতে নিউইয়র্কে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে বলে দাবি করেছে নিউইয়র্ক পুলিশ। সন্দেহভাজন হিসেবে আটক বাংলাদেশি যুবক আকায়েদ উল্লাহর বরাত দিয়ে পুলিশ নিউইয়র্ক পোস্টকে এ কথা জানায়।  


পুলিশ বলেছে, হাসপাতালে আহত অবস্থায় আকায়েদ বলেছেন, তারা আমার দেশে বোমা বিস্ফোরণ করছে, তাই আমি এখানে হামলা করতে চেয়েছি।


যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরের ম্যানহাটনে স্থানীয় সময় সকাল সাতটা ২০ মিনিটে পোর্ট অথরিটি টার্মিনাল স্টেশানের ভূগর্ভস্থ পথে এ বিস্ফোরণ ঘটে। এতে চারজন আহত হয়েছেন। হামলাকারীকেও আহত অবস্থায় আটক করা হয়েছে।

 

যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি সংবাদমাধ্যম খবর দিয়েছে, হামলায় জড়িত সন্দেহে আটক ব্যক্তি বাংলাদেশি বলে দাবি করেছে পুলিশ। তিনি নিজের শরীরের সাথে চিকন পাইপ ও প্লাস্টিক বস্তুর মাধ্যমে শরীরের সাথে বোমাটি বেঁধে রেখেছিলেন বলে পুলিশ জানায়।

 

সন্দেহভাজন হিসেবে আটক বাংলাদেশি যুবক আকায়েদ উল্লাহ


স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এ হামলার কারণ উদ্ঘাটন করতে না পারলেও কথিত ইসলামিক স্টেটের (আইএস) আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ওই যুবক হামলা চালিয়েছেন বলে দাবি করেছে। এই ঘটনাকে ‘সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টা’ আখ্যা দিয়ে নিউইয়র্কের মেয়র বিল ডে ব্লাসিও বলেন, ‘সন্ত্রাসীরা বিজয়ী হবে না। আমরা নিউইয়র্কবাসী তাদের রুখে দেব।’


পুলিশ জানাচ্ছে, বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দেয়া ২৭ বছর বয়সী আকায়েদ ক্যাবগাড়ি চালাতেন। প্রতিশোধমূলক হামলা চালাতে তিনি এ বিস্ফোরণ ঘটান। ২০১১ সালে ইস্যু করা ড্রাইভিং লাইসেন্স থেকে তার ছবি ও পরিচয় সনাক্ত করে নিউইয়র্কের মোটর গাড়ি দফতর।


স্থানীয় গণমাধ্যম জানাচ্ছে, আকায়েদ ব্রুকলিনের বাসিন্দা। গত ৭ বছর ধরে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে বাস করছেন। তাকে নিয়ে তার প্রতিবেশীদের মন্তব্যে দেখা যাচ্ছে একাকী বসবাস ও চলাফেরা করতেন। কারও সাথে তেমন একটা মিশতেন না।


নিউইয়র্ক পোস্টকে এক প্রতিবেশী ক্যাট মারা বলেন, তার আচরণ অদ্ভূত ছিল। সব সময় মনে হত তিনি কোনো কিছু ভাবছেন। খুব বেশি উদাসীন লাগত তাকে। এমনকি হ্যালো পর্যন্ত বলত না। তার সাথে কাউকে দেখাও যেত না।


নিউইয়র্ক পুলিশ জানিয়েছে, আকায়েদকে বেলভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে। বিস্ফোরণে হাত ও পেট দগ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন তিনি।

 


Top