মেয়ে যদি প্রেমিকের হাত ধরে পলায়, তাই শ্বাসরোধে হত্যা! | daily-sun.com

মেয়ে যদি প্রেমিকের হাত ধরে পলায়, তাই শ্বাসরোধে হত্যা!

ডেইলি সান অনলাইন     ১০ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৮:২৬ টাprinter

মেয়ে যদি প্রেমিকের হাত ধরে পলায়, তাই শ্বাসরোধে হত্যা!

১৭ বছর বয়সী মেয়েটি অন্য ধর্মের একটি ছেলের প্রেমে পড়েছিলেন। বাড়িতে তা জানাজানি হতেই পারিবারিক অশান্তি শুরু হয়।

 

ওই তরুণীর বাবা ধরেই নিয়েছিলেন, মেয়ে বাড়ি থেকে পালাবে। তাই তথাকথিত ‘সম্মান রক্ষার জন্য’ পরিকল্পনা করে শনিবার ভোররাতে মেয়েটিকে ঘুমের মধ্যে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়!

 

এই হত্যাকান্ডে বাধা না দিয়ে বরং সহযোগিতা করার অভিযোগ উঠেছে নাবালিকার মা ও ঠাকুমার বিরুদ্ধেও। তেলেঙ্গানার আদিলাবাদের এই ঘটনায় অভিযুক্ত তিন জনকেই জিগ্যাসাবাদের জন্য পুলিশ আটক করেছে।

 

অভিযুক্তদের জেরা করে পুলিশ জানতে পারে, শুক্রবার রাতে ওই তরুণীই তাদের বাড়িতে প্রেমিককে আসতে বলেছিলেন। ছেলেটি এলে মেয়েটির বাবা লক্ষ্মণ সিংয়ের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। ওই ঘটনার পরেই নাবালিকার বাবা, মা ও ঠাকুমা একসঙ্গে বসে মেয়েকে মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নেন। পরিকল্পনা মতো শনিবার ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে মেয়ের ওড়না দিয়ে তাকে শ্বাসরোধ করে মেরে ফেলন লক্ষ্মণ।

 

জেরায় লক্ষ্মণ পুলিশকে জানান, তাদের আশঙ্কা ছিল, এই সম্পর্কে বাধা দিলেও, মেয়ে শুনবে না। ওই ছেলেটির হাত ধরেই বাড়ি থেকে পালাবে।

 

তাতে পরিবারের সম্মানহানি হবে আশঙ্কা করেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আদিলাবাদের এই দম্পতির আরও দুই মেয়েও রয়েছে।


Top