বসনিয়ার ‘কসাই’ রাতকো ম্লাদিচের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড | daily-sun.com

বসনিয়ার ‘কসাই’ রাতকো ম্লাদিচের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ডেইলি সান অনলাইন     ২২ নভেম্বর, ২০১৭ ২০:২০ টাprinter

বসনিয়ার ‘কসাই’ রাতকো ম্লাদিচের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

 

বসনিয়া ও হার্জিগোভিনায় মুসলিমদের ওপর গণহত্যা চালানোর দায়ে সাবেক বসনিয়ান সার্ব কমান্ডার ‘বুচার অব বসনিয়া তথা বসনিয়ার কসাই’ খ্যাত রাতকো ম্লাদিচকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিটিওয়াই)। বুধবার সাবেক যুগোস্লাভিয়ার হেগের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল 'স্রেবেনিকা গণহত্যায় সরাসরি জড়িত' আখ্যা দিয়ে ৭৪ বছর বয়সী এ জেনারেলের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধ মামলার এ রায় ঘোষণা করেন।


রায়ে ম্লাদিচের নেতৃত্বাধীন বাহিনীর বিরুদ্ধে ১৯৯২ থেকে ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত বসনিয়ায় গণহত্যা,যুদ্ধাপরাধ এবং মানবতাবিরোধী অপরাধসহ ১১টি অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। এর মধ্যে ম্লাদিচের নির্দেশে ১৯৯৫ সালের জুলাই মাসেই অন্তত ৮ হাজার নিরস্ত্র মুসলিম পুরুষ ও বালককে হত্যা করা হয়েছিল।


এছাড়া আরেকটি অভিযোগ হলো, সারায়েভো অবরোধ করে হাজার হাজার মানুষকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়েছিল ম্লাদিচের বাজিনী।

 


বসনিয়ার সার্ব নেতা রাদোভান কারাদজিচ ও সার্বিয়ার প্রেসিডেন্ট স্লোভোদান মিলোসেভিচের সঙ্গে মিলে ম্লাদিচ ‘বৃহত্তর সার্বিয়া’ প্রতিষ্ঠা করতে মুসলমানদের ওপর গণহত্যার পরিকল্পনা করেছিলেন।


এ গণহত্যার পর ১৯৯৫ সালে কারাদজিচের সঙ্গেই অভিযুক্ত হন ম্লাদিচ; ২০১১ সালে তাকে গ্রেফতার করা হয়।


কারদজিচকে ২০১৬ সালে ৪০ বছরের কারাদণ্ড দেয় আইসিটিওয়াই। অন্যদিকে মিলোসেভিচ ২০০৬ সালে বিচার চলাকালে জেলের মধ্যেই মারা যান।


প্রসঙ্গত, জাতিসংঘ মোতায়েনকৃত শান্তিরক্ষীদের পাহারা থেকে এসব মুসলিম পুরুষ এবং নাবালক ছেলেদের আলাদা করে সারিবদ্ধভাবে জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে হত্যা করা হয়। বিচারপতি আলফোনস ওরি রায়ে আরও বলেন, সেখানে বসবাসরত মুসলিমদের নিশ্চিহ্ন করাই স্রেব্রেনিকার অপরাধ সংঘটনকারী দুর্বৃত্তদের উদ্দেশ্য ছিল।

 


Top