ক্যান্সার সারাতে ‘হিউম্যান বারবিকিউ’ থেরাপি! | daily-sun.com

ক্যান্সার সারাতে ‘হিউম্যান বারবিকিউ’ থেরাপি!

ডেইলি সান অনলাইন     ১৫ নভেম্বর, ২০১৭ ২১:৫৪ টাprinter

ক্যান্সার সারাতে ‘হিউম্যান বারবিকিউ’ থেরাপি!

চীনা যুবক জিয়া বিনহুই তার হাড়ের ক্যান্সার সারাতে নিজের বাড়ির পেছনে একটি হিউম্যান বারবি কিউ তৈরি করেছেন। সেখানে প্রতিদিন রোস্ট থেরাপি নিচ্ছেন তিনি। তবে ক্যান্সার সারানোর এ অদ্ভুত পদ্ধতিতে এখনো কোনো ফল পাননি জিয়া।

 

দক্ষিণ চীনের ইয়ুনান প্রদেশের ইয়াংলং গ্রামের ২৫ বছর বয়সী জিয়ার হাড়ের ক্যান্সার ধরা পড়ে ২০১৩ সালে। রোগ সারাতে জমানো ও ধার করা ৮০ হাজার ডলার ব্যয় করেন তিনি। কিন্তু ক্যান্সার সারেনি। এখন চরম অর্থাভাবে পড়েছেন এই যুবক। তবে হাল ছাড়েননি তিনি।

 

চিকিৎসকদের কাছে তিনি শুনেছেন ৪২ ডিগ্রি তাপমাত্রায় ক্যান্সারের কোষ মরে যায়। এ কথা শোনার পর জিয়া যেন নতুন করে জীবনের আশা পেলেন। নাছোড়বান্দা জিয়া তার বাড়ির বাগানে একটি হিউম্যান বারবিকিউ তৈরি করেন।

 

কাঠের গুঁড়ো, গাছের ডালপালা দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে সেই আগুনের ওপর তৈরি করা একটি সাঁকোতে শুয়ে থাকেন জিয়া। যতক্ষণ সম্ভব সহ্য করেন আগুনের তাপ। তার আশা, এভাবে হয়তো তার ক্যান্সার এক সময় সেরে যাবে। জিয়া তার ফেসবুকে লিখেছেন, ‘বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা আমাকে বলেছেন, ৪২ ডিগ্রি তাপমাত্রায় ক্যান্সারের কোষ মারা যায়। তাই হিউম্যান বারবিকিউ তৈরি করেছি।

 

দেখি এটা কাজ করে কিনা।’ জিয়া বলেন ‘গরম পানিতে তাপ নিতে পারলে হয়তো আরো বেশি কাজ করতো। কিন্তু সেটা অসম্ভব। তাই রোস্ট হওয়ার মতো তাপ দেয়ার ব্যবস্থা করেছি।’ হাসপাতালের চিকিৎসার মতো অর্থ না থাকায় জিয়া এই অপ্রচলিত চিকিৎসা ব্যবস্থা চালিয়ে যেতে চান।

 

তিনি বলেন, ‘এতে কাজ হলে এই তাপ দেয়া চালিয়ে যাব।’ ২০১৫ সালের মার্চ মাসে জিয়া তার বান্ধবী লিউ ইয়ানকে বিয়ে করেছেন। ইয়ানের বিশ্বাস ক্যান্সারের কাছে পরাজিত হবেন না জিয়া।


Top