প্রতিপক্ষের চক্রান্তের শিকার হয়েও যেভাবে বিশ্বকাপে সেনেগাল | daily-sun.com

প্রতিপক্ষের চক্রান্তের শিকার হয়েও যেভাবে বিশ্বকাপে সেনেগাল

ডেইলি সান অনলাইন     ১২ নভেম্বর, ২০১৭ ১৯:৪১ টাprinter

প্রতিপক্ষের চক্রান্তের শিকার হয়েও যেভাবে বিশ্বকাপে সেনেগাল

বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা যদি এমন পদক্ষেপ না নিত তাহলে ১৬ বছর পর আবারও ফুটবল বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ হত না সেনেগালের। এটা সবাই জানে যে আফ্রিকার তৃতীয় দেশ হিসেবে শুক্রবার রাতে ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে সেনেগাল।

 

পোলোকোয়ানেতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২-০ গোলে হারিয়েছে তারা।  কিন্তু কীভাবে এই যোগ্যতা অর্জন করল তারা? কী ছিল এর পেছনের ঘটনা?

 

গত বছর নভেম্বরে পোলোকোয়ানেতে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ১ -২ হেরে গিয়েছিল সেনেগাল। পরে ফিফা তদন্ত করে দেখেছিল, ওই ম্যাচের রেফারি 'ম্যানেজড' হয়ে গিয়েছিলেন! ফলে ঘানার সেই রেফারি যোসেফ ল্যাম্পার্টকে আজীবন সাসপেন্ড করে ফিফা। আর ম্যাচটা বাতিল করে আবারও নতুন করে শিডিউল দেওয়া হয়।  এক বছর পর সেই ম্যাচ জিতেই সেনেগাল ২০০২ সালের পর আবারও বিশ্বকাপে।

 

২০০২ সালের কোরিয়া-জাপান বিশ্বকাপে চমক দেখিয়েছিল ব্রুনো মেতসুর সেনেগাল। প্রথম ম্যাচেই বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সকে হারানোর পর কোয়ার্টার ফাইনালে পর্যন্ত খেলেছিল তারা। সেখানে তুরস্কের কাছে হের শেষ হয় সেনেগালের বিশ্বকাপ মিশন। সেই সফল বিশ্বকাপ অভিযানের অধিনায়ক অ্যালিউ সিজের হাত ধরেই ফের বিশ্বকাপের মূলপর্বে সেনেগাল।

 

২ বছর ধরে সেনেগালের এই টিমকে গড়ে তুলেছেন কোচ অ্যালিউ। তার কোচিংয়েই এক ম্যাচ বাকি থাকতে রাশিয়ায় টিকিট পেল সেনেগাল। অ্যালিউয় বলেছেন, 'ওটাও (২০০২ বিশ্বকাপ) একটা স্বপ্ন ছিল। এটাও আমার কাছে একটা স্বপ্নই মনে হচ্ছে। '

 

সেনেগালের সাফল্যের স্থপতি ইপিএলের দুই তারকা। ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডের স্টাইকার দিয়াফ্রা শাখো আর লিভারপুলের অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার সাদিও মানে। শুক্রবার সেনেগালের গোল করেন এই দুজন। আফ্রিকা থেকে নাইজিরিয়া ও মিশর আগেই বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন করেছিল। সেনেগালও পেল। বাকি দুটি স্থানের লড়াইয়ে এগিয়ে মরক্কো আর তিউনিশিয়া।


Top