হোস্টেলের ১৭ জন ছাত্রী মিলে ধর্ষণ করলো ইলেকট্রিক্যাল মিস্ত্রিকে! | daily-sun.com

হোস্টেলের ১৭ জন ছাত্রী মিলে ধর্ষণ করলো ইলেকট্রিক্যাল মিস্ত্রিকে!

ডেইলি সান অনলাইন     ১২ নভেম্বর, ২০১৭ ১৯:০৯ টাprinter

হোস্টেলের ১৭ জন ছাত্রী মিলে ধর্ষণ করলো ইলেকট্রিক্যাল মিস্ত্রিকে!

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পুর্ব কলকাতা গার্লস কলেজের হোস্টেলে গত ১৮ জানুয়ারি সন্ধ্যায়।

 

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, পুর্ব কলকাতা গার্লস কলেজের পার্শে অবস্থিত তিন তলা ভবনে দুই তলা পুরো টা ছাত্রী হোষ্টেল। ১৮ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বৈদ্যতিক সমস্যার কারণে পাশের ইলেকটিক্যাল মিস্ত্রি হিরনকে ডেকে নিয়ে যায় হোষ্টেলের এক ছাত্রী। কিন্তু সন্ধ্যা পেরিয়ে রাত হয়ে গেলেও ফেরেননি হিরন। দেরি দেখে দোকানের কর্মচারি ধীরেন হোষ্টলে খোজ নিলে তারা তাকে বলেন হিরন কাজ শেষ করে চলে গেছে।

 

তবে পরদিন ১৯ জানুয়ারী সকালে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে কলকাতা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। তদন্তে হিরন বর্ণনা করে তার উপর পার্শবিক নির্যাতনের কথা। তিনি বলেন কাজ শেষে চলে আসার সময় শর্বত খাওয়ার জন্য এক গ্লাস শর্বত দেন এক ছাত্রি। এর পর তিনি অচেতন হয়ে পড়েন। পরবর্তীতে তার জ্ঞান ফিরলে তিনি নিজেকে হাত পা বাধা অবস্থায় আবিষ্কার করেন হোষ্টেলের এক রুমে।

 

পরবর্তীতে তার শরীরে যৌন উত্তেজক ইনজেকশন পুশ করা হয়। এরপর সারারাত পালাক্রমে ধর্ষণ হতে থাকেন তিনি। প্রায় ১৭ জন মেয়ে তাদের যৌন বাসনা মিটিয়েছেন হিরনকে দিয়ে। এক পর্যায়ে হিরন কয়েক বার জ্ঞান হারান, তারপরও ছাত্রীরা তাকে ছাড়েনি, খোঁজ নিয়ে জানা গেছে এই মেয়েদের মধ্যে সবাই পুর্ব কলকাতা গার্লস কলেজের সম্মান বিভিন্ন বর্ষের ছাত্রী। এই ঘটনায় এলাকায় বসবাসরত বাসিন্দারা নিন্দা জানিয়েছেন।


Top