ঝগড়াঝাটি করে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান হবে না: প্রধানমন্ত্রী | daily-sun.com

ঝগড়াঝাটি করে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান হবে না: প্রধানমন্ত্রী

ডেইলি সান অনলাইন     ২৩ অক্টোবর, ২০১৭ ১৯:১৩ টাprinter

ঝগড়াঝাটি করে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান হবে না: প্রধানমন্ত্রী

 

বাড়াবাড়ি বা ঝগড়াঝাটি করে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান করা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ধৈর্য ধরে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে এ সমস্যার সমাধান করতে হবে। সোমবার (২৩ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিপরিষদের নিয়মিত বৈঠকে নির্ধারিত আলোচনার সময় তিনি এ কথা বলেন। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক মন্ত্রিপরিষদ সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।


মন্ত্রিপরিষদের একজন সদস্য বলেন, সভায় মিয়ানমার সফরে গিয়ে এক লাখ টন চাল কেনার বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদকে অবহিত করছিলেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। এ সময় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, মিয়ানমার তো বর্বর ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের কারণেই আজ রোহিঙ্গাদের মতো বোঝা আমাদের ঘাড়ে। আমরা সেখান থেকে চাল আনছি, এটা কেমন হয়। 


এ সময় শেখ হাসিনা বলেন, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ সম্পর্ক চলছে। কিন্তু তাদের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্যও চলছে। আমরা কূটনৈতিকভাবে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান করব, এটাই আমাদের লক্ষ্য। তিনি বলেন, আমি যখন জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে ছিলাম তখন মিয়ানমার উসকানি দিয়েছে। আমরা তাতে কান দেইনি। আমরা বাড়াবাড়ি করলে হয়তো পরিস্থিতি অন্যরকম হত। তারা কয়েকবার আমাদের আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছে। আমরা ধৈর্য ধরেছি।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাড়াবাড়ি বা ঝগড়া করে তো কোনো সমস্যার সমাধান করা যাবে না। ধৈর্যধারণ করে কূটনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করতে হবে। যদি আমরা মিয়ানমারের সঙ্গে বাড়াবাড়ি করতাম, তাহলে বিশ্বজনমত আমাদের পক্ষে থাকত না। বিশ্বজনমত আমাদের পক্ষে আছে। আমরা কারও উসকানিতে পা দেব না। আমাদের মূল লক্ষ্য রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো। কূটনৈতিক তৎপরতাও চলবে, মিয়ানমারের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্যও চলবে। ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ রাখা যাবে না।


মন্ত্রিপরিষদের অন্য এক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মিয়ানমার সফর বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে বলেন, ‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলেছি মিয়ানমারের সঙ্গে কোনও উগ্র আচরণ নয়, সহনশীল ও ধৈর্যের পরিচয় দিতে হবে। তারা যদি উগ্র আচরণ করেও আমাদের সহনশীল হতে হবে, ধৈর্য সহকারে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে এ সমস্যার সমাধান করতে হবে।’


বৈঠক সূত্র আরও জানায়, বৈঠকে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম জানিয়েছেন, দেশে খাদ্যের কোনো সমস্যা হবে না। প্রচুর চাল, গম আমদানি হচ্ছে। ইতোমধ্যে বেসরকারিভাবে ১৯ লাখ টনের বেশি চাল-গম আমদানি হয়েছে। সরকারিভাবে ৭-৮ লাখ টন চাল-গম আমদানি হচ্ছে। সব মিলিয়ে প্রায় ৩০ লাখ টন চাল-গম আমদানি হবে। ফলে দেশে খাদ্য সঙ্কটের কোনো আশঙ্কা নেই।

 


Top