নারীসঙ্গের অভিযোগ উঠায় নিজেকেই বীভৎস শাস্তি দিলেন সাধুবাবা! | daily-sun.com

নারীসঙ্গের অভিযোগ উঠায় নিজেকেই বীভৎস শাস্তি দিলেন সাধুবাবা!

ডেইলি সান অনলাইন     ১৮ অক্টোবর, ২০১৭ ১৪:২০ টাprinter

নারীসঙ্গের অভিযোগ উঠায় নিজেকেই বীভৎস শাস্তি দিলেন সাধুবাবা!

রাম রহিমের গল্প সবারই জানা হয়ে গেছে। বহু মহিলাকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। দুই শিষ্যাকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত হয়ে জেল খাটছেন এই বাবা। তবুও নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করার জন্য কোনও রাস্তাই ছাড়েননি তিনি।

 

কিন্তু অন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন রাজস্থানের এক স্বঘোষিত বাবা। রাজস্থানের চুরু জেলার এই ৩২ বছরের সাধু নিজের গোপনাঙ্গ কেটে ফেললেন। 

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, সাধু সন্তোষ দাসের বিরুদ্ধে এক মহিলার সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কের অভিযোগ আসতেই তিনি এই শাস্তি দেন নিজেকে। 

 

তারানগরের একটি আশ্রমে থাকেন সন্তোষ। পুলিশ জানিয়েছে, তাঁকে সঙ্গে সঙ্গে বিকানিরের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই তাঁর চিকিৎসা চলছে। 

তবে ঠিক কী অভিযোগের কারণে তিনি এই কাণ্ড ঘটালেন, তা এখনও পরিষ্কার নয় পুলিশের কাছেও। তিনি একটু সুস্থ হলেই পুলিশ সন্তোষ দাসের বয়ান রেকর্ড করবে।

 

এর আগেও আসারাম বাপুর বিরুদ্ধে মহিলাদের নিগ্রহের অভিযোগ উঠতেই, ২০১৩ সালে অমেঠির মাধবপুর গ্রামের এক ৫০ বছরের সাধু বাবা প্রেমদাস নিজের গোপনাঙ্গ কেটে ফেলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘‘আমি আসারামের অনুগামী নই। কিন্তু একজন সাধুর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ ওঠাতে আমি বিরক্ত। সাধু সমাজের উপর এটি একটি কলঙ্ক।’’

 


Top