পরোয়ানা হাতে আসলেই খালেদার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী | daily-sun.com

পরোয়ানা হাতে আসলেই খালেদার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ডেইলি সান অনলাইন     ১৭ অক্টোবর, ২০১৭ ১৬:৫৬ টাprinter

পরোয়ানা হাতে আসলেই খালেদার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

 

গ্রেপ্তারি পরোয়ানা হাতে আসলেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি বলেন, আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। আমরা কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নই। খালেদা জিয়া দেশে ফিরলে তার জন্যও আইন অনুযায়ীই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর)  বাংলা একাডেমিতে পারিবারিক নির্যাতন প্রতিরোধ জোট ‘আমরাই পারি’র  উদ্যেগে আয়োজিত নারীর যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ক এক জাতীয় সম্মেলনে অংশ নেওয়ার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।


চিকিৎসা শেষে আগামীকাল বুধবার লন্ডন থেকে দেশে ফিরছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। ফেরার আগ মুহূর্তে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আদালত বেশ কয়েকটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ান জারি করেছেন। এমন প্রেক্ষাপটে দেশে পা রাখলেই খালেদা জিয়া গ্রেপ্তার হতে পারেন বলে অনেকে ধারনা করছেন। বিষয়টি নিয়ে সাংবাদিকরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।


প্রসঙ্গত, গত কয়েক দিনের ব্যবধানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে তিনটি মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) জিয়া অর্ফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল করে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন ঢাকার বকশিবাজারের স্থাপিত অস্থায়ী বিশেষ আদালত। একই দিন ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন তেজগাঁও থানায় মুক্তিযুদ্ধ ও জাতীয় পতাকা অবমাননার একটি মামলায়। 


এর আগে গত ৯ অক্টোবর বিএনপি চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে ৮ খুন মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়।


এসময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে তার আসন্ন মিয়ানমার সফর নিয়েও প্রশ্ন করা হয়। সাংবাদিকরা জানতে চান, মিয়ানমার সফরে কোন কোন ইস্যু নিয়ে আলোচনা করা হবে। এ প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মিয়ানমারের এই সফরটি আমার পূর্বনির্ধারিত একটি সফর। সীমান্ত সংকট নিরসনসহ চারটি বিষয়ে সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার কথা ছিল এই সফরে। তবে এখন পরিস্থিতি আলাদা। মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গারা এসে আমাদের দেশে আশ্রয় নিয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। মিয়ানমার জানিয়েছে, রোহিঙ্গাদের শনাক্ত করে ফিরিয়ে নেবে তারা। এই ইস্যুতেও কথা বলব সফরে।’


স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমার মিয়ানমার সফরে আগে থেকে নির্ধারিত এজেন্ডাগুলো নিয়ে আলোচনা হবে, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়েও কথা হবে। তবে রোহিঙ্গা ইস্যু এই সফরে প্রাধান্য পাবে।’


এর আগে সচিবালয়ে গত বৃহস্পতিবার তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন যে, আগামী ২৩ অক্টোবর তিনি মিয়ানমার যাবেন। তবে সে দাবি থেকে সরে এসে মঙ্গলবার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘মিয়ানমারের আমন্ত্রণে আমরা যাব। তবে কবে যাব সেটি এখনও ঠিক হয়নি। মিয়ানমার যেদিন সময় ঠিক করবে, সেদিনই যাব।’

 


Top