সিউল-ওয়াশিংটন যৌথ মহড়ার আগেই ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়বেন কিম! | daily-sun.com

সিউল-ওয়াশিংটন যৌথ মহড়ার আগেই ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়বেন কিম!

ডেইলি সান অনলাইন     ১৫ অক্টোবর, ২০১৭ ২১:৫৯ টাprinter

সিউল-ওয়াশিংটন যৌথ মহড়ার আগেই ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়বেন কিম!

নতুন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে তৈরি উত্তর কোরিয়া। পিয়ং ইয়ংয়ের একটি সূত্রকে উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা এএফপি এই খবর জানিয়েছে।

 

মার্কিন গোয়েন্দাদের আশঙ্কা, ফের নতুন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়তে উদ্যোগী সে দেশের সর্বাধিনায়ক ও 'খ্যাপা' যুদ্ধবাজ নেতা কিম জং উন। আমেরিকা ও সিউলের যৌথ সামরিক মহড়ার আগেই এই নতুন মিসাইল ছুড়তে চান কিম।

 

মার্কিন নৌ বাহিনী শুক্রবার জানিয়েছে, একটি মার্কিন রণতরী চলতি সপ্তাহেই এই মহড়ার নেতৃত্ব দেবে। উত্তর কোরিয়াকে কড়া বার্তা দিতেই যে এই মহড়া সে কথাও বুঝিয়েছে ওয়াশিংটন। তবে এই যৌথ সামরিক মহড়ার খবরে বেজায় চটেছে পিয়ং ইয়ং। আর সম্ভবত মার্কিন আগ্রাসনের জবাব দিতেই কিম নতুন মিসাইল নিয়ে তৈরি। 

 

দেশটির সংবাদপত্র এক সরকারি সূত্রকে বরাত দিয়ে জানিয়েছে, স্যাটেলাইট থেকে প্রাপ্ত ছবি দেখে বোঝা যাচ্ছে, পিয়ংইয়ং ও উত্তর ফংগ্যান প্রদেশের কাছে হ্যাঙ্গারে ব্যালিস্টিক মিসাইল জড়ো করা হচ্ছে।

 

মার্কিন ও দক্ষিণ কোরিয়ার সেনা কর্মকর্তারা মনে করছেন, উত্তর কোরিয়ার এই নতুন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র মার্কিন ভূখণ্ডে আঘাত হানতে সক্ষম। নতুন মিসাইলটি সম্ভবত হ্যাসং-১৪ আন্তর্মহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র, যার পাল্লা আলাস্কা পর্যন্ত।

 

মার্কিন গোয়েন্দাদের অনুমান, নতুন ইন্টার-কন্টিনেন্টাল ব্যালিস্টিক মিসাইলটি হ্যাসং ১২ বা ১৩-ও হতে পারে। যদি তাই হয়, তাহলে নতুন ক্ষেপণাস্ত্রটির পাল্লা আমেরিকার পশ্চিম উপকূলকে ছুঁতে পারে। 

 

তবে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী এখনই এই বিষয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলছেন না। এক সরকারি কর্তা বলছেন, মিলিটারির বিষয়ে কোনও মন্তব্য করব না। তবে উত্তর কোরিয়ার সব রকম পদক্ষেপের উপর যে কড়া নজর রাখা হচ্ছে, সে কথা স্বীকার করে নিয়েছেন ওই সরকারি কর্তা।


Top