সোশ্যাল মিডিয়ায় কেন এই ছবি ভাইরাল? | daily-sun.com

সোশ্যাল মিডিয়ায় কেন এই ছবি ভাইরাল?

ডেইলি সান অনলাইন     ১০ অক্টোবর, ২০১৭ ১৮:১৭ টাprinter

 সোশ্যাল মিডিয়ায় কেন এই ছবি ভাইরাল?

টুইটারে এই ছবি পোস্ট হওয়ার পর থেকে ভাইরাল। ক্রমাগত শেয়ার হয়েই চলেছে করজোড়ে প্রণত এই পুলিশ অফিসারের ছবি। সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ছবি অন্ধ্র প্রদেশের অনন্তপুরে তোলা। এতে যা দেখা যাচ্ছে, তা জলের মতোই সহজ। একটি মোটর বাইকে পাঁচ আরোহী আর তাঁদের সামনেই এই সনাতনী প্রণামের ভঙ্গিমা করছেন পুলিশ অফিসার। একটি বাইকে পাঁচ আরোহী, তাতে আবার কারোর মাথাতেই হেলমেট নেই। এই ছবি যে ট্রাফিক আইন ভঙ্গের এক প্রকৃষ্ট উদাহরণ, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। কিন্তু এমন অবস্থায় পুলিশ সাহেব প্রণাম করছেন কাকে? 

 

মঙ্গলবার এই ছবি টুইট করেছেন আইপিএস অফিসার অভিষেক গয়াল। কর্নাটক ক্যাডারের এই অফিসার সকাল ৭টায় এই টুইটটি করেন। তার পর থেকে ১৯০০ বার রিটুইট হয় সারাদিনে। অভিষেক তাঁর টুইটে লিখেছেন— ‘‘এর থেকে বেশি আমরা কী করতে পারি? আমাদের সামনে একটা চয়েস থাকেই... নিরাপদটাই গ্রহণ করা ভাল!’’

 

যে পুলিশ অফিসারকে ছবিতে করজোড়ে দেখা যাচ্ছে, তাঁর নাম বি সুভাষ কুমার। তিনি অনন্তপিরের মাদাকাসিরা সার্কেলে কর্মরত। তিনি ডিউটিরত অবস্থায় এই পরিবারটিকে বাইকে আরোহনরত অবস্থায় দেখতে পান। পরিবারের প্রধান, যিনি বাইক চালাচ্ছেন, তাঁর নাম কে হনুমন্থরায়ডু। সুভাষ কুমারের সঙ্গে এই পরিবারটির দেখা হয় ট্রাফিক আইন সংক্রান্ত এক অনুষ্ঠানের শেষে।

 

খবরে প্রকাশ, হনুমন্থরায়ডু এর আগেও অসংখ্য বার ট্রাফিক আইন ভেঙেছেন। বহু বার তাঁকে চেতাবনি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়নি। শেষমেশ এই পাঁচজনের হেলমেটহীন বাইক রাইডের সামনে তিনি নিজেকে আর ধরে রাখতে পারেননি। করজোড়ে তাঁকে প্রণাম জানান সুভাষ। তাঁর মতে, এ ছাড়া তাঁর আর কিছুই করার ছিল না। 

এই কাণ্ডেও বিন্দুমাত্র লজ্জিত নন হনুমন্থরায়ডু। তিনি নাকি সুভাষের কাণ্ডে দার্শনিক হাসি হেসেছেন। পুরনো প্রবাদ মনে পড়তে পারে, কয়লা শত ধুলেও পরিষ্কার হওয়ার নয়! 

 


Top