তথ্য কর্মকর্তা ও গণমাধ্যমকর্মীদের মধ্যে সহযোগীতা বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ | daily-sun.com

তথ্য কর্মকর্তা ও গণমাধ্যমকর্মীদের মধ্যে সহযোগীতা বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ

ডেইলি সান অনলাইন     ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২২:২০ টাprinter

তথ্য কর্মকর্তা ও গণমাধ্যমকর্মীদের মধ্যে সহযোগীতা বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ

শনিবার ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের সংবাদমাধ্যম পরিদর্শনে এসে মতমিনিময় সভায় মিলিত হন তথ্য কর্মকর্তারা

ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের সবকটি গণমাধ্যমের সম্পাদক ও জ্যেষ্ঠ সাংবাদিকরা এবং সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে কর্মরত তথ্য কর্মকর্তারা তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিত করতে নিজেদের মধ্যে পেশাগত সহযোগিতা আরও বাড়ানোর উপর গুরত্বারোপ করেন।

 

অজ শনিবার বেলা ১২টার দিকে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় অবস্থিত ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া কমপ্লেক্সের মিডিয়া কনফারেন্স রুমে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তারা এ প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করেন।

 

তারা গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে তথ্য কর্মকর্তাদের সংযোগ বৃদ্ধি ও তথ্য আদান-প্রদানের মাধ্যমে কীভাবে সঠিক তথ্য দ্রুত জনমানুষের সামনে তুলে ধরা যায় এ নিয়ে আলোচনা করেন।

 

দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক ও নিউজ টোয়েন্টি ফোরের সিইও নঈম নিজামের সঞ্চালনায় এতে সাংবাদিকদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন ডেইলি সানের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এনামুল হক চৌধুরী, কালের কণ্ঠের সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, কালের কণ্ঠের নির্বাহী সম্পাদক মোস্তফা কামাল, বাংলাদেশ প্রতিদিনের যুগ্ম সম্পাদক আবু তাহের, নিউজ টোয়েন্টিফোরের নির্বাহী পরিচালক হাসনাইন খুরশিদ, নিউজটোয়েন্টিফোরের হেড অব কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স সামিয়া রহমান ও প্রধান বার্তা সম্পাদক শাহনাজ মুন্নী, রেডিও ক্যাপিটালের নির্বাহী পরিচালক মেহেদি মালেক সজীব, ডেইলি সানের নির্বাহী সম্পাদক শিহাবুর রহমান, বাংলানিউজের কনসালটেন্ট এডিটর জুয়েল মাজহার প্রমুখ। মতবিনিময় সভার পর তারা ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের ব্যানারে পরিচালিত বাংলাদেশ প্রতিদিন, কালের কণ্ঠ, ডেইলি সান, বাংলানিউজ২৪.কম, রেডিও ক্যাপিটাল ও নিউজ টোয়েন্টিফোর টেলিভিশন কার্যালয় ঘুরে দেখেন।

 

তথ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত প্রধান তথ্য অফিসার ফজলে রাব্বীর নেতৃত্বে তথ্য কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তথ্য অধিদপ্তরের সিনিয়র উপপ্রধান তথ্য অফিসার ফায়জুল হক, তথ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মীর আকরাম উদ্দীন আহম্মদ, তথ্য অধিদপ্তরের চিফ ফিচার রাইটার মো. আলী সরকার, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মীর মোহা. আসলাম উদ্দিন, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সিনিয়র তথ্য অফিসার সৈয়দ এ. মুমেন, দুর্নীতি দমন কমিশনের সিনিয়র তথ্য অফিসার প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার বিবেকানন্দ রায়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. আব্দুল লতিফ বকসী, তথ্য অধিদপ্তরের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. মঞ্জুর-ই-মাওলা, দীপংকর বর, আফরোজা নাইচ রিমা, তথ্য অফিসার ইসরাত জাহান, ফাহমিদা শারমীন হক, মো. আলমগীর হোসেন, ফাহিমা জাহান, এ এম ইমদাদুল ইসলাম, বিরোধীদলীয় নেতার কার্যালয়ের তথ্য অফিসার মো. মামুন হাসান, প্রবাসী কল্যান ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের তথ্য অফিসার জাহাঙ্গীর আলম, সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের তথ্য অফিসার মাইদুল ইসলাম প্রধান, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের তথ্য অফিসার মোহাম্মদ জাকির হোসেন, তথ্য অধিদপ্তরের ক্রয় কর্মকর্তা মো. শাহ আলম সরকার ও সহকারী প্রধান আলোকচিত্র গ্রাহক ইসমাইল হোসেন।


Top