মেয়েবেলাতেই যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন এই চার অভিনেত্রী! | daily-sun.com

মেয়েবেলাতেই যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন এই চার অভিনেত্রী!

ডেইলি সান অনলাইন     ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৪:৩৬ টাprinter

মেয়েবেলাতেই যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন এই চার অভিনেত্রী!

- কালকি কোচলিন

 

 

কখনও পরিবার তো, কখন পরিবারিক বন্ধুদের দ্বারা ছেলেবেলায় যৌনভাবে নির্যাতিতা হয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু তাঁরা চান না তাঁদের সঙ্গে যা হয়েছে তা আজ অন্য কারও পরিণতি হোক। তাই নিজেদের কথা এখন সবার সামনে তুলে ধরলেন তাঁরা, যাতে তাঁদের মতো না জেনে কেউ না ঠকে৷


কালকি কোচলিন: বয়স তখন তাঁর মাত্র ৯ বছর৷ ‘সেক্স’ শব্দটির যে কী মানে, সেটা জানতেন না৷ সেই না জানার সুযোগ নিয়েছিলেন এক ব্যক্তি৷ নিজের অজান্তেই নাবালিকা বয়সে যৌন সম্পর্কে হ্যাঁ বলে, প্রকারন্তর যৌনভাবে নির্যাতিতা হয়েছিলেন অভিনেত্রী কালকি কোয়েচলিন৷  ৯ বছর বয়সে এই ঘটনার পর কালকির ভয় ছিল, যেন তাঁর মা কোনওভাবেই না সে কথা জানতে পারেন৷ সেদিন কালকির মনে হয়েছিল, তিনি কোনও গর্হিত অপরাধ করে ফেলেছিলেন৷ নিজের ‘সেক্সচুয়ালিটি’ নিয়েও সন্দিহান হয়েছিলেন সেই বয়সে৷ তবে এখন পরিণত বয়সে পৌঁছে তাঁর মনে হয়েছে, যদি সেদিন তাঁর বাড়িতে সে কথাগুলো বলার মতো পরিস্থিতি থাকত, তাহলে তাঁকে নিজেকে অবসাদে, জটিলতায় ভুগতে হত না৷ তাই কালকি চান, যৌনতাকে ট্যাবু করে সরিয়ে না রেখে, তা নিয়ে খোলামেলা আলোচনা হোক৷ যাতে ছোটদেরও তা নিয়ে ধারণা স্বচ্ছ হয়৷ কেউ নির্যাতনের স্বীকার যাতে না হয়, তার জন্য বিষয়টি কী জানা জরুরী-এমনটাই মত কালকির৷


সোমি আলি: মাত্র পাঁচ বছর বয়সেই শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছিলেন সোমি আলি। নিজের মুখেই সে কথা স্বীকার করতে দ্বিধা করলেন না প্রাক্তন বলি অভিনেত্রী সোমি আলি৷ সলমন খানের সঙ্গে তাংর প্রেম নিয়ে একসময় সরগরম ছিল বলিপাড়া৷ জানিয়েছেন তিনি শ্লীলতাহানির শিকার হন মাত্র পাঁচ বছর বয়সে৷ বাড়ির লোকের হাতেই হয়েছিল তাঁর এই পরিণতি৷ এমনকি পাকিস্তানী অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ডোমেস্টিক ভায়োলেন্সের মধ্যেই তিনি বড় হয়ে উঠেছেন৷ তাঁর মা ও মায়ের বন্ধুদেরও নির্যাতনের শিকার হতে দেখেছেন৷ শরীরে দাগ ও ক্ষত দেখিয়ে যখন ছোট্ট সোমি জানতে চাইতেন, এসব কী করে হয়েছে, তাঁর মা বলতেন সিঁড়ি থেকে পড়ে গিয়ে এরকম অবস্থা৷ সোমি এ কথা জানিয়েছেন কারণ তিনি মনে করেন, এই কথা গুলো সকলেরই শোনা উচিত৷ তাহলে আর হেনস্থার শিকার হওয়া কাউকে কেউ ছোট চোখে দেখবে না৷

 


অনুষ্কা শর্মা: ছোট বেলায় আর পাঁচটা সাধারণ মেয়ের মতো যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছিলেন এই নায়িকাও। মুখ বুজে ছেলে বেলায় তিনি যে ভুলটা করেছেন, সেই ভুল যাতে আর কেউ না করেন তাই, সেক্স নিয়ে খোলামেলা আলোচনা তিনি চান। তিনি জানিয়েছেন, বাইরের কেউ নন তিনি তাঁর বাবা-মার ঘনিষ্ট কিছু বন্ধুদের দ্বারা নির্যাতিত হয়েছেন। তাই তিনি চান ওম্যান রাইটস নিয়ে একটি ক্যাম্পেনিং করতে।

 


সোফিয়া হায়াত: না, বাবা-মেয়ের কোন বন্ধু নয়, না! প্রতিবেশীও নয়। মাত্র দশ বছরের নিজের পরিবারের সদস্য দ্বারা নির্যাতিত হয়েছিলেন এই মডেল। কিন্তু সেই সময় লজ্জায়, ভয়ে কাউকে কিছু বলতে পারেনি তিনি। তাই মুখ বুঝে কাকার সব অত্যাচার সহ্য করেছিলেন তিনি। এক সময় মানসিক অবসাদ গ্রাশ করে তাকে। সেই সময়টা মনে পড়লে আজও শিউরে ওঠেন এই গায়িকা। তাই তিনি চান না কোন মেয়ের ছোট বেলাটা দুঃস্বপ্নে পরিণত হোক। তাই সেক্স নিয়ে ছোটদেরও যাতে স্বচ্ছ একটা ধারনা হয়৷ কেউ নির্যাতনের স্বীকার যাতে আর না হয়, তার জন্য বিষয়টি কী তা খোলাখুলি আলোচনার কথা বলেছেন এই সেলেব।

 


Top