স্মিথকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙলেন তাইজুল | daily-sun.com

স্মিথকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙলেন তাইজুল

ডেইলি সান অনলাইন     ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৫:০১ টাprinter

স্মিথকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙলেন তাইজুল

 

স্মিথ-ওয়ার্নার জুটি ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছিল। অর্ধ শতক রান তুলে নিয়েছিলেন স্টিভ স্মিথ। কিন্তু তাইজুল ইসলাম বোলিংয়ে বিদায় নিতে হলো স্মিথকে। আর তাতে ভাঙল স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার জুটি। বাংলাদেশ পেল দিনের দ্বিতীয় সাফল্য। ৫ রানে প্রথম উইকেট পতনের পর ৯৮ রান দ্বিতীয় উইকেট হারালো অস্ট্রেলিয়া। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ২ উইকেটে ৯৯ রান। ওয়ার্নার ৩৫ ও পিটার হ্যান্ডসকম্ব শূন্য রানে অপরাজিত আছেন।


বাংলাদেশের করা ৩০৫ রানকে সামনে রেখে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৫ রানেই ম্যাট রেনশকে বিদায় জানান মুস্তাফিজ। দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে অধিনায়ক মুশফিকের তালুবন্দী হন তিনি। ৭ বলে ৪ রান করে বিদায় নেন তিনি।


এর আগে চট্টগ্রামের জহুর আহম্মেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ব্যাট হাতে শুরুটা ভালো হয়নি টাইগারদের। দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই টাইগার শিবিরে নাথান লায়নের আঘাত। অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমকে বোল্ড ৬৪ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরালেন তিনি। এরপর অনেকটা দেখেশুনেই খেলা শুরু করেন নাসির ও মিরাজ। তবে ব্যক্তিগত ৪৫ রানে অ্যাশটন অ্যাগার ঘর্ণিতে ম্যাথু ওয়েডের তালুবন্দী হন নাসির। এরপর স্কোর বোর্ডে ৩ রান যোগ করতেই ব্যক্তিগত ১১ রানে ওয়ার্নারের সরাসরি ছোড়া বলে রানআউট হন মিরাজ। পরে ব্যক্তিগত ৭ রানে লায়নের বলে স্মিথের তালুবন্দী হন তাইজুল। আর তাতেই বাংলাদেশের ইনিংস থেমে যায় ৩০৫ রানে।


দ্বিতীয় দিনে ৬ উইকেটে ২৫৩ রান নিয়ে মাঠে নামে বাংলাদেশ।


মিরপুর টেস্টের চতুর্থ ইনিংসে স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার ছোট খাটো প্রতিরোধ গড়েছিলেন। তবে সাকিব আল হাসানের ঘূর্ণি জাদুর কাছে হার মানতে হয় তাদের। আসলে হার মানে গোটা অস্ট্রেলিয়াই। চট্টগ্রাম টেস্টে নিজেদের প্রথম ইনিংসে সেই স্মিথ ও ওয়ার্নার মিলে প্রতিরোধ গড়তে শুরু করেছিলেন। দলীয় ৫ রানে ম্যাট রেনশকে হারিয়ে বিপাকে পড়লেও স্মিথ-ওয়ার্নারের ব্যাটে বেশ ভালো ভাবেই ঘুরে দাঁড়ায় অস্ট্রেলিয়া। আউট হওয়ার আগে স্মিথ ৯৪ বলে ৫৮ রানের ইনিংস খেলেন। ৮টি চারে তিনি নিজের ইনিংসটি সাজান। টেস্ট ক্যারিয়ারের স্মিথের এটি ২১তম ফিফটি।


স্মিথ ফেরার পর ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন পিটার হ্যান্ডসকম্প। ওয়ার্নার ৩৫ রান নিয়ে খেলছেন। বাংলাদেশের বোলিংয়ে প্রথম সাফল্যটি আসে মোস্তাফিজুর রহমানের বলে। উইকেটের পিছনে মুশফিকের হাতে ম্যাট রেনশকে দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত করেন তিনি। এর আগে আগের দিনের ৬ উইকেটে ২৫৩ রান নিয়ে খেলতে নেমে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস শেষ হয় ৩০৫ রান।

 


Top