বিএনপির ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ | daily-sun.com

বিএনপির ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

ডেইলি সান অনলাইন     ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১২:১৩ টাprinter

বিএনপির ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

 

আজ ১ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার), বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। ১৯৭৮ সালের এই দিনে তত্কালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বিএনপি প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠার পর বিভিন্ন সময় সংকটে পড়লেও দলটি বিগত কয়েক বছর ধরে অনেকটাই কোনঠাসা। আগামী নির্বাচনকে সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি দেশের অন্যতম রাজনৈতিক এই দলটি।


১৯৭৮ সালের এই দিনে রাজধানীর রমনা রেস্তোঁরায় এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিএনপি গঠনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান। তিনি ছিলেন বিএনপির সমন্বয়ক ও প্রথম চেয়ারম্যান এবং অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী ছিলেন দলের প্রথম মহাসচিব।


দলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে পৃথক বাণী দিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বাণীতে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সর্বস্তরের নেতাকর্মী, শুভানুধ্যায়ী এবং দেশবাসীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। বর্তমানে তিনি চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্যে অবস্থান করছেন।


এদিকে, দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শুক্রবার সকালে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের সিনিয়র নেতারা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।


১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। এরপর সেনাবাহিনীতে অভ্যুত্থান-পাল্টা অভ্যুত্থানের এক পটভূমিতে ওই বছরের ৭ নভেম্বর ক্ষমতায় চলে আসেন জিয়াউর রহমান। প্রথমে তিনি ১৯ দফা কর্মসূচির ভিত্তিতে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক দল (জাগদল), পরবর্তীকালে ডান-বাম বিভিন্ন রাজনৈতিক মত ও পথের অনুসারীদের এক মঞ্চে এনে ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপিতে রূপান্তরিত করেন।


বিএনপি গঠনের মাত্র ৩ বছরের মাথায় ১৯৮১ সালের ৩০ মে চট্টগ্রামে একদল বিপথগামী সেনা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানকে হত্যা করে। জিয়াউর রহমান নিহত হওয়ার পর দলটি প্রথমবারের মতো নেতৃত্ব সংকটে পড়ে। তৎকালীন উপ-রাষ্ট্রপতি বিচারপতি আব্দুস সাত্তার দলের হাল ধরেন। ১৯৮২ সালের ২৪ মার্চ জেনারেল এরশাদের সামরিক অভ্যুত্থানে তিনি ক্ষমতাচ্যুত হন। বিচারপতি সাত্তারের ক্ষমতাচ্যুতির মাধ্যমে বিএনপির অস্তিত্ব সংকটে পড়ে। ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদসহ বিএনপির অনেক নেতাই তখন জেনারেল এরশাদের সরকারে যোগ দেন। সংকটকালে ১৯৮৩ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি বিএনপির হাল ধরেন খালেদা জিয়া। দলটির ৩৯ বছরের ইতিহাসে প্রায় ৩৬ বছর ধরে দলের চেয়ারপারসনের দায়িত্ব পালন করছেন খালেদা জিয়া।


জেনারেল এরশাদের সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার আপোসহীন ভূমিকা ১৯৯১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় আসে। এরপর ২০০১ সালে আবারও ক্ষমতায় আসে দলটি। বর্তমানে প্রায় ১১ বছর ধরে দলটি ক্ষমতার বাইরে। সর্বশেষ ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির সাধারণ নির্বাচন বর্জন করে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট।


মুলত: ২০১৪ সালর ৫ জানুয়ারি নির্বাচন বয়কট করে বিএনপি অনেকটাই ব্যাকফুটে চলে যায়। আগাম নির্বাচনের দাবি আদায়েও ব্যর্থ হয় দলটি। পরবর্তিতে বিএনপি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি থেকে সরে এসে সহায়ক সরকারের অধীনে একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন দাবি করছে। এ লক্ষ্য অর্জনে দেশের ভেতরে এবং আন্তর্জাতিকভাবে সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে নানা আঙ্গিকে কাজ করে যাচ্ছেন দলের শীর্ষ নেতারা।


দলটির নেতাকর্মীদের দাবি, ২০০৭ সালের এক-এগারোর পর থেকে বিএনপি বিপর্য়ের মধ্য আছে। দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ঝুলছে মামলার খড়গ। শীর্ষপর্যায়ের অধিকাংশ নেতাকে আগামীতে নির্বাচন করতে দেয়া হবে কি না তা নিয়ে  আছে সংশয়।

 


Top