রানার মোটরসের সিকেডি ট্রাক সংযোজন প্রকল্পের গ্রাউন্ড ব্রেকিং অনুষ্ঠান | daily-sun.com

রানার মোটরসের সিকেডি ট্রাক সংযোজন প্রকল্পের গ্রাউন্ড ব্রেকিং অনুষ্ঠান

ডেইলি সান অনলাইন     ৩১ আগস্ট, ২০১৭ ২০:২৩ টাprinter

রানার মোটরসের সিকেডি ট্রাক সংযোজন প্রকল্পের গ্রাউন্ড ব্রেকিং অনুষ্ঠান

 

 

 ২৯শে আগস্ট  ময়মনসিংহের ভালুকায় রানার মোটরস এর ব্যবস্থাপনায় আইশার সিকেডি ট্রাক সংযোজন প্রকল্পের শুভ গ্রাউনড ব্রেকিং অনুষ্ঠান আড়ম্বরপূর্ণ ভাবে অনুষ্ঠিত হয় । অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ভারতের ভি ই কমার্শিয়াল ভেহিকেলস এর সম্মানিত ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মিঃ বিনোদ আগরওয়াল, রানার মোটরস লিঃ এর সম্মানিত চেয়ারম্যান জনাব হাফিজুর রহমান খান ছাড়াও অনুষ্ঠানে ভিইসিভি এর  সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ইনটারন্যাশন্যাল বিজনেস মিঃ এস এস গিল, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ম্যানুফ্যাকচারিং অপারেশন মিঃ আদিত্য কুমার শ্রীবাস্তব, শ্রী পঙ্কজ উপাধ্যায়, কৌশিক ভট্টাচার্য, তরুণ অরোরা, জ্ঞ্যানেন্দ্র দাস এবং আমন্ত্রিত অতিথি বৃন্দ সহ রানার মোটরস এর ডিলারগণ ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন ।

এই সিকেডি প্রকল্পের গ্রাউনড ব্রেকিং অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন ভিইসিভি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মিঃ বিনোদ আগরওয়াল 

 

 

তিনি তাঁর বক্তব্যে জানান যে, বাংলাদেশে গত তিন দশক যাবত আইশার মোটরস এর ট্রাক ও বাস সুনামের সঙ্গে ব্যবসা করছে । বিশেষ করে বাংলাদেশে গত তিন বছরে আইশার ট্রাকের মার্কেট শেয়ার আগের তুলনায় চারগুন বৃদ্ধি পেয়েছে । এজন্য তিনি বাংলাদেশে তাঁদের পরিবেশক রানার মোটরস এর প্রশংসা করেন ।  ভিই কমার্শিয়াল ভেহিকেলস সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করে জ্বালানী সাশ্রয়ী ও পরিবেশ বান্ধব উন্নত যানবাহন তৈরি করে কমার্শিয়াল ভেহিকেলস এর জগতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ । বিশ্ববিখ্যাত “ভলভো” কোম্পানির আন্তর্জাতিক অভিজ্ঞতা ও আইশারের উদ্ভাবনী প্রযুক্তির সমন্বয় ঘটিয়ে পণ্যের গুনগত মান উন্নয়নে ভিইসিবি অবিরাম কাজ করে চলেছে ।

 

বাংলাদেশ মার্কেট ভিইসিভি’র জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিধায় এদেশের উপযোগী ও ক্রেতা চাহিদা অনুযায়ী যানবাহন তৈরি করতে ভিইসিভি সদা সচেষ্ট । তাই রানার মোটরস লিঃ এর উদ্যোগে স্থাপিত এই সিকেডি গাড়ী সংযোজন প্রকল্পটি একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। ভিইসিভি এই প্রকল্পের সাফল্যের জন্য সব রকম কারিগরি সহায়তা প্রদান করবে । তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, এর ফলে বাংলাদেশে ভবিষ্যতে আরও সাশ্রয়ী মুল্যে আইশার ট্রাক বাজারজাত করা সম্ভব হবে এবং এখানে দক্ষ প্রকৌশলী ও কর্মী তৈরি হবে ।

 

 

রানার মোটরস লিঃ এর চেয়ারম্যান জনাব হাফিজুর রহমান খান তাঁর বক্তব্যে জানান যে, প্রায় ৩০ একর জমিতে নির্মিতব্য এই সিকেডি প্রকল্পটিতে ভিইসিভি থেকে “সম্পূর্ণ বিযুক্ত অবস্থায়” আমদানী করা আইশার এর বিভিন্ন মডেলের ট্রাক সংযোজন করা হবে। ভিইসিবি এতে কারিগরি সহায়তা দিবে । বাংলাদেশ সরকারের ঘোষিত নীতিমালা অনুসারে দেশে স্থানীয় ভাবে গাড়ী উৎপাদনের প্রাথমিক উদ্যোগ হিসাবে এটি স্থাপন করা হচ্ছে ।

 

 

তিনটি পর্যায়ে এর কাজ সমাপ্ত হবে । ১ম পর্যায়ে এসেম্বলি লাইন ও টেস্টিং লাইন স্থাপন, ২য় পর্যায়ে এতে যুক্ত হবে “টপ কোট পেইন্টিং লাইন ও কেবিন ট্রিমিং” এবং ৩য় পর্যায়ে যুক্ত হবে “ বডি শপ”, “সিইডি প্রাইমার” ও “ফ্রেম ওয়েলডিং ফ্যসিলিটি”। ২০১৮ সালের অক্টোবরে এই প্রকল্পটি ১ম পর্যায়ের পরীক্ষামুলক উৎপাদনে যাবে বলে তিনি জানান । সিঙ্গেল শিফট হিসাবে প্রতিমাসে ২৫০টি গাড়ী সংযোজন ক্ষমতা সম্পন্ন এই প্রকল্প বছরে ৩০০০ গাড়ী সংযোজনে সক্ষম হবে । এই প্রকল্প আমাদের দেশের অনেক মানুষের কর্ম সংস্থান ও দক্ষতা বাড়াতে সাহায্য করবে। তিনি কারিগরি সহায়তা দেয়ার জন্য ভিইসিভি কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান।  এ ছাড়াও অন্যান্য যারা এই প্রকল্পের সাফল্যের জন্য প্রথম থেকেই নিবেদিত হয়ে কাজ করছেন তাঁদেরকে ধন্যবাদ জানান ।

 


Top