পরকীয়ায় মত্ত হয়ে স্ত্রীকে যৌন পল্লীতে বিক্রি | daily-sun.com

পরকীয়ায় মত্ত হয়ে স্ত্রীকে যৌন পল্লীতে বিক্রি

ডেইলি সান অনলাইন     ১৪ আগস্ট, ২০১৭ ১৯:২৪ টাprinter

পরকীয়ায় মত্ত হয়ে স্ত্রীকে যৌন পল্লীতে বিক্রি

বিয়ের পরে সব ঠিকই চলছিল। কিন্তু হঠাৎ বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে লিপ্ত হয় স্বামী। শেষে ঘর ছাড়ল স্বামী। কিন্তু তার পরে আবার স্ত্রীকে নিজের কাছে ডেকে ঘৃণ্য একটি কাজ করে।

 

স্ত্রীকে দিল্লি নিয়ে গিয়ে যৌন পল্লীতে বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ উঠলো খোদ স্বামীর বিরুদ্ধে। যৌন পল্লী থেকে কোনও রকমে পালিয়ে এসে এই বিষয়ে স্বামীর নামে বাসন্তী থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন স্ত্রী। সোমবার সকালে বাসন্তী থানায় গিয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন ওই মহিলা।

 

বছর তিনেক আগে বাসন্তী থানার অন্তর্গত কলতলার সাজাহান মোল্লার সঙ্গে ওই মহিলার বিয়ে হয়। বিয়ের পরে প্রায় বছর খানেক দুজনের মধ্যে সম্পর্ক ভালই ছিল। কিন্তু স্ত্রী অন্তঃস্বত্ত্বা হওয়ার পরেই তাঁর উপরে অত্যাচার শুরু করে সাজাহান। এমনকী, মারধরও করত সে। সাজাহান সেভাবে কোনও কাজই করত না। ওই মহিলা বাড়িতে জরির কাজকর্ম করতেন। এরই মধ্যে বছর দেড়েক আগে অন্য মহিলার সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পরে স্ত্রীর উপরে অত্যাচার আরও বাড়িয়ে দেয় সাজাহান।

 

বাধ্য হয়েই বাপের বাড়িতে ফিরে যায় ওই গৃহবধূ। সেখানেই সন্তান প্রসব করেন তিনি। অন্যদিকে বাসন্তী ছেড়ে দিল্লি পাড়ি দেয় সাজাহান। সেখান থেকেই মাঝে মধ্যে ফোন করে স্ত্রী-র সঙ্গে কথা বলত সে। গত ঈদে বাড়ি ফেরার কথা থাকলেও ফেরেনি সাজাহান। উল্টে ঈদের পরেই স্ত্রীকে দিল্লি ডেকে পাঠায় সে। স্বামীর ডাকে সাড়া দিয়ে দিল্লি রওনা দেন ওই গৃহবধূ।

 

সেখানে হাফিজুর মোল্লা নামে এক বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে স্ত্রীকে একটি বাড়িতে তোলে সাজাহান। সেখানেই স্ত্রীকে যৌন ব্যবসায় নামার জন্য চাপ দিতে থাকে সে। রাজি না হওয়ায় বেধড়ক মারধর করে, অবশেষে দিল্লির এক যৌনপল্লীতে বিক্রি করে দেয় স্ত্রীকে। সেখানে কিছুদিন থাকার পরে অবশেষে এক খরিদ্দারের সাহায্যে পালাতে সক্ষম হন গৃহবধূ।

 


Top