মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ: প্রাণ হারালেন আহত বাবা | daily-sun.com

মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ: প্রাণ হারালেন আহত বাবা

ডেইলি সান অনলাইন     ২৪ জুলাই, ২০১৭ ১১:২৭ টাprinter

মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ: প্রাণ হারালেন আহত বাবা

 

মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করতে গিয়ে সন্ত্রাসীদের হাতে গুরুতর আহত হয়েছিলেন কাজী মাহবুব (৫০) নামে এক পিতা। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে এক সপ্তাহ পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। রবিবার (২৩ জুলাই) রাতে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান মাহবুব। তিনি জেলা শহরের পাবলিক হল রোডের বাসিন্দা ও গোপালগঞ্জ সদর সাব রেজিষ্ট্রার অফিসের একজন স্টাম্প ভেন্ডার ছিলেন।


গত ১৫ জুলাই রাত ৯টার দিকে আকাশের (২২) নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী তাকে কুপিয়ে পালিয়ে যায় বলে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়।


জানা গেছে, স্থানীয় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী কাজী মাহবুবের মেয়েকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতো বখাটে আকাশ। তাকে বেশ কয়েকবার নিষেধ করা হলেও সে বরং উত্ত্যক্তের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। বিষয়টি ধৈর্যের বাইরে চলে গেলে মেয়ের বাবা কাজী মাহবুব পুলিশকে অবহিত করেন। পুলিশ বেশ কিছুদিন আগে আকাশকে ধরে নিয়ে পরে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়।


এরই জের ধরে ১৫ জুলাই আকাশের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী মেয়েটির বাবা কাজী মাহবুবকে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে। গুরুতর আহতাবস্থায় তাকে প্রথমে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে এবং পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রবিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।


গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মারা যাবার খবর আমরা লোকমুখে শুনেছি। এখনো পর্যন্ত থানায় অভিযোগ আসেনি। এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।

 


Top