আশুলিয়ার আত্মসমর্পণ করা ৪ জঙ্গি ৪ দিনের রিমান্ডে | daily-sun.com

আশুলিয়ার আত্মসমর্পণ করা ৪ জঙ্গি ৪ দিনের রিমান্ডে

ডেইলি সান অনলাইন     ১৭ জুলাই, ২০১৭ ১৭:২৭ টাprinter

আশুলিয়ার আত্মসমর্পণ করা ৪ জঙ্গি ৪ দিনের রিমান্ডে

 

সাভারের আশুলিয়ায় নয়ারহাটের চৌরাবালি এলাকায় ‘জঙ্গি আস্তানা’ থেকে আত্মসমর্পণকারী চার ‘জঙ্গি’ সদস্যের বিরুদ্ধে চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার (১৭ জুলাই) সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফাইরুস তাসনিন এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

 
এর আগে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে তাদের হাজির করে সাভার থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে দায়ের করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। শুনানি শেষে প্রত্যেকের বিরুদ্ধে চারদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।


আটক জঙ্গিরা হলেন ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল থানার সাংকিভাদা গ্রামের আব্দুল মান্নান মিয়ার ছেলে মোজাম্মেল হক মাসুদ (১৮), চট্টগ্রাম জেলার রাউজান থানার কদলপুর মেয়াজি গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে ইফরানুল ইসলাম ওরফে সুফিয়ান খান (২০), গাইবান্ধা জেলার ফুলছড়ি থানার উদাখালী গ্রামের রেজাউল করিমের ছেলে রাশেদুল নবী রাশেদ (২২) ও সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার হোগলি কৃষনগর গ্রামের আব্দুল হান্নান আলীর ছেলে মো. আলমগীর হোসেন (২১)। মোজাম্মেল হক তাদের দলনেতা বলে র‌্যাব জানায়।


গতকাল রবিবার বেলা আড়াইটার দিকে সংবাদ ব্রিফিংয়ে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান বলেন, আটক চারজন গুলশানের হলি আর্টিসান বেকারিতে হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী নব্য জেএমবির সারওয়ার-তামিম গ্রুপের সদস্য ছিলেন তারা।। ওই এলাকায় তাদের নাশকতার পরিকল্পনা ছিল।


মুফতি মাহমুদ বলেন, জঙ্গিরা বের হয়ে আসার পর বাড়িটিতে বেশ কিছু শক্তিশালী বিস্ফোরকের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। সেগুলো পর্যায়ক্রমে নিষ্ক্রিয় করার কাজ করে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল।


অভিযান শেষে আনুষ্ঠানিক বক্তব্যে মুফতি মাহমুদ খান আরও বলেন, মোজাম্মেল হক, রাশেদুন নবী, আলমগীর হোসেন, ইরফানুল হক নামের আটক চার যুবক নিজেদের পোশাককর্মী পরিচয় দিয়ে এক মাস আগে বাড়িটি ভাড়া নেয়। ভাড়া নেয়ার সময় তারা বাড়ির মালিককে কোনো কাগজপত্র দেয়নি। 


বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সূত্র থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব রাত ১টার দিকে বাড়িটি ঘিরে অভিযান চালায়। রাত ৩টার দিকে ‘জঙ্গিরা’ জানতে পারেন র‌্যাব বাড়িটি ঘিরে রাখে। রবিবার সকাল ৮টার দিকে ‘জঙ্গিরা’ র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ও বোমা ছোড়ে। র‌্যাব বারবার তাদের আত্মসমর্পণের জন্য মাইকে আহ্বান জানায়।


সবশেষ তাদের বলা হয়, দুপুর ১২টার মধ্যে আত্মসমর্পণ না করলে র‌্যাব অভিযান চালাবে। এতে ‘জঙ্গিরা’ নিহত হতে পারে। এরপর এক ‘জঙ্গি’ আত্মসমর্পণ করেন। তার মাধ্যমে বাকি তিন ‘জঙ্গিকে’ আত্মসমর্পণ করানো হয় বলেও জানান মুফতি মাহমুদ খান।

 

 


Top