আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন আরাফাত সানি | daily-sun.com

আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন আরাফাত সানি

ডেইলি সান অনলাইন     ১৭ জুলাই, ২০১৭ ১৩:০৮ টাprinter

আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন আরাফাত সানি

 

যৌতুকের জন্য নির্যাতনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার আরাফাত সানির। আজ সোমবার (১৭ জুলাই) বেলা ১১টার পরে তিনি ঢাকা মহানগর হাকিম জাকির হোসেন টিপুর আদালতে আত্মসমর্পণ করেন।


শুনানি শেষে আদালত আরাফাত সানির জামিন মঞ্জুর করেন। গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির এক দিনের মাথায় জামিন পেলেন তিনি।


আরাফাত সানির আইনজীবী মুরাদুজ্জামান বলেন, যৌতুকবিরোধী আইনে করা মামলায় আরাফাত সানি আত্মসমর্পণ করে জামিন নিয়েছেন। অন্যদিকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে করা মামলায় আরাফাতের জামিন আগামী ৭ আগস্ট পর্যন্ত বাড়িয়েছেন ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালত।


গতকাল রবিবার (১৬ জুলাই) অভিযোগ গঠনের (চার্জশিট) ধার্য দিনে উপস্থিত না থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন ঢাকা মহানগর হাকিম জাকির হোসেন টিপু। এদিন আদালতে সানির বিরুদ্ধে নাসরিন আক্তারের যৌতুকের জন্য নির্যাতনের মামলার অভিযোগ (চার্জশিট) গঠন করা হয়।


মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, ২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর নাসরিন আক্তারের সঙ্গে সানির পাঁচ লাখ এক টাকার দেনমোহরানায় বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে ২০১৫ সালের ২৯ জুলাই ক্রিকেটার সানি ২০ লাখ টাকা যৌতুকের দাবি করেন। যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় তাকে বিভিন্নভাবে গালাগালি এবং শারীরিক নির্যাতন করা হয়। 

 


২০১৬ সালের ২৩ ডিসেম্বর নাসরিন তাকে ঘরে তুলে নেয়ার আবেদন করলে সানি যৌতুকের টাকার জন্য ফের চাপ দিতে থাকেন। সর্বশেষ ২০১৭ সালের ১৯ জানুয়ারি বাদীর কাছে ২০ লাখ টাকা যৌতুকের টাকা দাবি করেন সানি। 


বাদী ওই টাকা দিতে অস্বীকার করলে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন সানি। নিরুপায় হয়ে নাসরিন আক্তার ২৩ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম রায়হানুল ইসলামের আদালতে মামলাটি করেন।


এ ছাড়া গত ৫ জানুয়ারি আরাফাত সানির বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি আইনে মোহাম্মদপুর থানায় এই মামলা করেন ওই তরুণী। গত ১৯ জানুয়ারি সানিকে ঢাকার আমিনবাজার এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে ওই তরুণী নিজেকে আরাফাত সানির স্ত্রী দাবি করে ২০ লাখ টাকা যৌতুক দাবির অভিযোগে যৌতুক নিরোধ আইনে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে আরেকটি মামলা করেন। সর্বশেষ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে সানি ও তাঁর মায়ের বিরুদ্ধে মামলা হয়। পরে সব কটি মামলাতেই তিনি জামিন পান।

 


Top