তিন দিনের সফরে জার্মানি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী | daily-sun.com

তিন দিনের সফরে জার্মানি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

ডেইলি সান অনলাইন     ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ ১১:২১ টাprinter

তিন দিনের সফরে জার্মানি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

 

তিন দিনের সরকারি সফরে জার্মানি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সফর কালে প্রধানমন্ত্রীর ৫৩তম মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টা ০৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে ইতিহাদ এয়ারওযেজের বিশেষ ফ্লাইটটি (ইওয়াই ২৫৩) জার্মানির উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে আকাশে উড্ডয়ন করে। 


বিমান বন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানাতে উপস্থিত ছিলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, প্রধানমন্ত্রী উপদেষ্টা এইচটি ইমাম ও ইকবাল সোবহান চৌধুরী, কেবিনেট সেক্রেটারি, তিনবাহিনীর প্রধানগণ এবং সামরিক ও বেসামরিক উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা।


জার্মানির যাত্রাপথে আবুধাবি আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে এক ঘণ্টার যাত্রাবিরতি করেন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীরা। শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় ভোর ৬টা ০৫ মিনিটে মিউনিখ বিমান বন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানটি পৌঁছায়। জার্মানিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ মিউনিখ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানান। সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রীকে সুশোভিত মোটর শোভাযাত্রা সহযোগে বার্লিনের ম্যারিয়ট হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়। জার্মানি সফরকালে প্রধানমন্ত্রী সেখানেই অবস্থান করবেন।


শুক্রবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী ৫৩তম মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্বে যোগ দেবেন। সেখানে আগত অতিথিদের সম্মানে মিউনিখের মেয়র আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেও যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।
প্রধানমন্ত্রী শনিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) মিউনিখে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেলের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে যোগ দেবেন এবং একই দিনে সম্মেলনের প্যানেল আলোচনায় জলবায়ু নিরাপত্তা এবং ‘গুড কপ ব্যাড কপস’-বিষয়ক পর্যালোচনা সভায়ও যোগ দেবেন।


ওই দিন (শনিবার) সন্ধ্যায়ই প্রধানমন্ত্রী ঢাকার উদ্দেশে মিউনিখ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করবেন। আবুধাবিতে ৬ ঘণ্টার যাত্রাবিরতি শেষে প্রধানমন্ত্রীর স্থানীয় সময় রাত ৮টায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছার কথা রয়েছে। এই সফর উপলক্ষে আয়েজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী জানিয়েছিলেন, বর্তমান বিশ্বের নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনায় ‘বেস্ট থিঙ্ক ট্যাঙ্ক কনফারেন্স’ হিসেবে বিবেচিত এই সম্মেলনে বিশ্বের ২০টি দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানরা যোগ দেবেন।


১৯৬৩ সালে মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনের যাত্রা শুরু হয়। পাঁচ দশক ধরে এই সম্মেলনে বৈশ্বিক নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলার বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ন্যাটো, ইইউ, গ্রিনপিস, ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের মতো আন্তর্জাতিক সংস্থা এবং অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থা সম্মেলনে যোগ দেবে।


বর্তমান বিশ্ব পরিস্থিতি এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের স্বার্থের পরিপ্রেক্ষিতে নিরাপত্তার প্রধান বিষয়গুলোর পাশাপাশি খাদ্য, পানি, স্বাস্থ্য, পরিবেশ, উদ্বাস্তু এবং অভিবাসনের মতো সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সম্মেলনে আলোচনা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

 


-->
Top