টানা তিন সিরিজে হোয়াইটওয়াশে সফর শেষ টাইগারদের | daily-sun.com

টানা তিন সিরিজে হোয়াইটওয়াশে সফর শেষ টাইগারদের

ডেইলি সান অনলাইন     ২৩ জানুয়ারী, ২০১৭ ১২:৫৬ টাprinter

টানা তিন সিরিজে হোয়াইটওয়াশে সফর শেষ টাইগারদের

বোলার বোল্ট, ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ, আম্পায়ার পল রাইফেল সবার দৃষ্টি নিবদ্ধ এক বিন্দুতে। ছবি: এএফপি

 

একদিন বৃষ্টিতে নষ্ট হওয়ার পরও চার দিনেই ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট জিতে বাংলাদেশকে টানা তিন সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করল নিউজিল্যান্ড। আরও স্পেসিফিক বলতে গেলে ৩ দিনেই হারল বাংলাদেশ।

সফরকারীদের দেওয়া ১০৮ রানের টার্গেটে ৯ উইকেট হাতে রেখেই পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড। এই ম্যাচ জয়ের ফলে ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি এবং টেস্ট সিরিজে টানা হোয়াইটওয়াশ হলো টাইগাররা। অনেক আশা নিয়ে নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে খালি হাতেই ফিরতে হচ্ছে তাদের।


ক্রাইস্টচার্চে টেস্ট ড্র করতে হলেও বাংলাদেশকে আগামীকাল পঞ্চম দিনের দুটি সেশন খেলতে হতো। কিন্ত চতুর্থ দিনেই আউট হওয়ার প্রতিযোগিতায় নেমে গেলেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। তামিম থেকে শুরু করে সাব্বির পর্যন্ত কেউ দায়িত্ব নিতে পারেননি। সেই সঙ্গে ছিল ক্যাচ মিসের পুরনো চিত্র। নিয়মিতভাবেই যার শিকার তাসকিন আহমেদ। আজ নতুন সংযোজন হলেন কামরুল ইসলাম রাব্বি।


দলীয় ১৭ রানে টিম সাউদিকে উইকেট উপহার দেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল (৮)। এরপর মাহমুদ উল্লাহ এবং সৌম্য সরকার জুটি গড়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু ব্যক্তিগত ৩৬ রানে জিত রাভালের দারুণ এক ক্যাচে ফিরে যান সৌম্য। তার জায়গায় সাকিব (৮) এসেই শট খেলতে শুরু করেন। দুইবার ক্যাচ দিয়ে বেঁচে গিয়েও থিতু হওয়ার চেষ্টা করেননি তিনি। তাই ৫ বল পরই বাজে শট খেলে সাউদির শিকারে পরিণত হন।


সাকিবের বিদায়ের পর 'সর্বোচ্চ' ৩৮ রান করে বিদায় নেন মাহমুদ উল্লাহ। আউট  হওয়ার মিছিলে যোগ দেন শান্ত (১২), সাব্বির (০) এবং নুরুল হাসান (০)। সাব্বির ১১টি বল খেলে খুব দৃষ্টিকটুভাবে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন তিনি। 'অল-রাউন্ডার' মেহেদী মিরাজ ফিরেছেন ৪ রান করে।


১১৫ রানে ৮ উইকেট হারানোর পর ব্যাট হাতেও জ্বলে উঠেন দুই বোলার কামরুল ইসলাম রাব্বি এবং তাসকিন আহমেদ। দুজনই খেলেন টেস্টে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। নবম উইকেটে দুজন দলীয় সর্বোচ্চ ৫১ রানের জুটি গড়েন। তাসকিন ৩০ বলে ১ চার এবং ২ ছক্কায় ৩৩ রান করেন। এটা তার ক্যারিয়ার সেরা এবং আজ চতুর্থ দিনে বাংলাদেশের তৃতীয় সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর। তাসকিনের এই কার্যকরী ইনিংসটি থামে ট্রেন্ট বোল্টের বলে বোল্ড হয়ে। অপর বোলার কামরুলও কম যাননি। তিনি ২৯ বলে ৩ চার এবং ১ ছক্কায় করেছেন অপরাজিত ২৫ রান। তাসকিনের বিদায়ের পর রুবেল হোসেন তাকে বেশিক্ষণ সঙ্গ দিতে পারেননি। রুবেল ৬ বলে ১ বাউন্ডারিতে ৭ রান করে টিম সাউদির তৃতীয় শিকারে পরিণত হন।  এই জুটিতে ভর করেই ১৭৩ রান করে ১০৮ রানের লিড নিয়ে অল আউট হয় বাংলাদেশ।


জবাবে ব্যাট করতে নেমে মামুলি লক্ষ্যে পৌঁছতে শুরু থেকেই আক্রমণাত্বক ব্যাটিং শুরু করে কিউইরা। ব্যক্তিগত ৩৩ রানে কামরুল ইসলাম রাব্বির বলে বোল্ড হয়ে যান জিত রাভাল। কিন্তু এতে কোনো সমস্যা হয়নি স্বাগতিকদের। অপর ওপেনার টম ল্যাথাম (৪১) এবং তিন নম্বরে নামা গ্র্যান্ডহোম (৩৩) দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। ফলে ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট ৯ উইকেটে হেরে সফর শেষ হলো টাইগারদের।

 


Top