ওয়েলিংটন টেস্ট: ৭ উইকেটে সহজেই জিতে নিল নিউজিল্যান্ড | daily-sun.com

ওয়েলিংটন টেস্ট: ৭ উইকেটে সহজেই জিতে নিল নিউজিল্যান্ড

ডেইলি সান অনলাইন     ১৬ জানুয়ারী, ২০১৭ ১১:০৩ টাprinter

ওয়েলিংটন টেস্ট: ৭ উইকেটে সহজেই জিতে নিল নিউজিল্যান্ড

 

স্বপ্নের মতো প্রথম ইনিংস পার করে আবারও সেই পুরনো ভুত ভর করল বাংলাদেশ শিবিরে। ভুতের নাম ব্যাটিং বিপর্যয়।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ব্যর্থতার মাসূল গুনতে হলো টাইগারদের। ইমরুল-মুশফিক ইনজুরি নিয়েও খেলতে নেমেছিলেন। মুশফিক আবারও আহত হয়ে মাঠ ছেড়েছেন। খোঁড়াতে থাকা ইমরুল কায়েস ছিলেন অপরাজিত। সাব্বির হাফ সেঞ্চুরি করে দায় সেরেছেন। দায়িত্ব নিতে পারেননি। দায়িত্ব নিতে পারেননি আর কেউ। তাই ৭ উইকেটে ওয়েলিংটন টেস্ট সহজেই জিতে নিল নিউজিল্যান্ড।


প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ করেছিল ৫৯৫ রান।

সেই বাংলাদেশের সাথে দ্বিতীয় ইনিংসের বাংলাদেশকে মেলানো কঠিন। সেদিনের ডাবল সেঞ্চুরিয়ান সাকিব আজ ডাক মারলেন। দলের মহাবিপদের সময় অকারণে অপ্রয়োজনীয় শট খেলতে গিয়ে ক্যাচ দিলেন তিনি। এছাড়া মাহমুদ উল্লাহ ৫, মেহেদী মিরাজ ১, মমিনুল হক ২৩, তামিম ইকবাল ২৫ রান করলেন। টেইল এন্ডারদের কথা তো বলাই বাহুল্য। টেল এন্ডারদের দাপটে গতকাল কিউইরা ৫০০ পার হয়েছিল। কিন্তু বাংলাদেশের আজন্ম সমস্যা হয়েই রইল টেইল এন্ডার।


দলের সর্বোচ্চ রান (৫০) করলেন সাব্বির আহমেদ। কিন্তু হাফ সেঞ্চুরি করে তার হয়তো মনে হলো যে অনেক রান করা হয়ে গেছে, এবার যাওয়া যাক। তাই বাজে শট খেলে উইকেট বিলিয়ে দিলেন তিনি। আঙুলে ফোলা আর প্রচণ্ড ব্যাথা নিয়ে ব্যাট হাতে নেমেছিলেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। কিন্তু সাউদির নির্মম বাউন্সারে মাথায় আঘাত পেয়ে সোজা হাসপাতালে যেতে হলো তাকে। তার আগে করে গেলেন ১৩ রান। শেষের দিকে দেখা গেল অনেকটা খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে মাঠে নামছেন গতকাল স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়া ইমরুল কায়েস। হার না মানা স্বভাবের এই ক্রিকেটার শেষ পর্যন্ত ৩৬ রানে অপরাজিত রইলেন। কিন্তু হায়, তার সঙ্গী ছিলেন না কেউ। প্রথম ইনিংসে রানের পাহাড় গড়া বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে টেনেটুনে ১৬০ রান করতে পারল।


২১৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে কিউইরা। কিন্তু কিছু পরেই জোড়া আঘাত হেনে ব্যতিক্রমী কিছুর ইঙ্গিত দেন মেহেদী মিরাজ। মেহেদীর ঘূর্ণিতে ক্যাচ তুলে দেন জিত রাভাল (১৩)। মেহেদী নিজেই সেই ক্যাচ তালুবন্দী করেন। দলীয় ৩১ রানে ভাঙে উদ্বোধনী জুটি। ল্যাথামের নতুন সঙ্গী হন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ফিরতি ওভারে বল করতে এসে আবারও আঘাত হানেন মেহেদী। এবার তার শিকার হন প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান টম ল্যাথাম। মেহেদীর বলে সরাসরি বোল্ড হয়ে যান ১৬ রান করা ল্যাথাম।


কিন্তু সে পর্যন্তই। এরপর আর পাত্তাই পায়নি বাংলাদেশের বোলাররা। টেইলর আর উইলিয়ামসন মিলে ১৬৩ রানের জুটি গড়েন। শুভাসীশের বলে মেহেদী মিরাজের দারুণ এক ক্যাচে টেইলর (৬০) ফিরে গেলে ভাঙে সেই জুটি। কিন্তু ঠিকই ক্যারিয়ারের ১৫তম সেঞ্চুরি তুলে নেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ৮৯ বলে তিন অংকে পৌঁছতে তিনি ১৫টি বাউন্ডারি হাঁকান।


এভাবে জয়ের বন্দরে গিয়ে অনেক ম্যাচ হেরেছে বাংলাদেশ। ওয়েলিংটন টেস্টও আরেকটি দৃষ্টান্ত হয়ে রইল। হয়ে রইল বিশ্বরেকর্ডও। কারণ প্রথম ইনিংসে ৫৯৫ রান কিংবা তার বেশি করে হারের রেকর্ড নেই কোনো দলের!

 


Top