logo
Update : 2018-07-12 15:36:56
ট্রাম্পের যৌন সঙ্গী সেই পর্নো তারকা গ্রেপ্তার!

ট্রাম্পের যৌন সঙ্গী সেই পর্নো তারকা গ্রেপ্তার!

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক থাকার অভিযোগকারী সেই পর্নো তারকা স্টর্মি ডানিয়েলসকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার আইনজীবী মাইকেল অ্যাভেনাত্তি এ কথা জানিয়েছেন। স্টর্মি ডানিয়েলসের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ওহাইও রাজ্যের একটি স্ট্রিপ ক্লাবে পারফরমেন্স করেন। এ সময় স্টেজেই তার শরীর স্পর্শ করার সুযোগ দেন আয়োজকদের। যা ওই রাজ্যের আইন বিরোধী। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন দ্য গার্ডিয়ান।   উল্লেখ্য, স্টর্মি ডানিয়েলসের প্রকৃত নাম স্টেফানি ক্লিফোর্ড। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি করে টুইট করেছেন তার আইনজীবী মাইকেল অ্যাভেনাত্তি। তিনি বলেছেন, আমরা এসব ভুয়া অভিযোগের বিরুদ্ধে লড়াই করবো। এর আগে বিস্ফোরক এক মন্তব্য করেন স্টর্মি ডানিয়েলস।   তিনি বলেন, ২০০৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তিনি শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেছিলেন। ওই সময় ট্রাম্প ছিলেন বিবাহিত। তবে এ অভিযোগকে প্রত্যাখ্যান করেছেন ডনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু সর্বশেষ ওহাইও রাজ্যের কলম্বাসে সাইরেনস নামের একটি স্ট্রিপ ক্লাবে পারফরম করছিলেন স্টর্মি ডানিয়েলস।   তার আইনজীবী বলেছেন, এ সময় তাকে যেভাবে স্পর্শ করা হয়েছে তার মধ্যে যৌনতা ছিল না। ওই রাজ্যে একটি আইন আছে। এর নাম কমিউনিটি ডিফেসন্স অ্যাক্ট। এই আইনের অধীনে একজন নগ্ন অথবা অর্ধ নগ্ন নৃত্যশিল্পীকে তার পরিবারের সদস্য নন এমন কেউ স্পর্শ করতে পারবেন না। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকালের দিকে স্টর্মি ডানিয়েলকে পুলিশি হেফাজতে নেয়া হয়েছে। এখন তাকে বিচারের মুখোমুখি দাঁড়াতে হবে।   মাইকেল অ্যাভেনাত্তি বলেছেন, এ অভিযোগ পুরো সাজানো। কলম্বাস পুলিশের একজন মুখপাত্র বলেছেন, তারা এ বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করবেন না। ওদিকে যে স্ট্রিপ ক্লাপে নেচেছিলেন স্টর্মি ডানিয়েলস তারাও কোনো মন্তব্য করছে না। উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও তার দীর্ঘদিনের ব্যক্তিগত আইনজীবী মাইকেল কোহেনের বিরুদ্ধে মামলা করছিলেন স্টর্মি ডানিয়েলস।