logo
Update : 2018-05-31 20:40:33
চার দফা দাবিতে বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশন

চার দফা দাবিতে বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশন

   বিড়ি শিল্পকে ভারতের ন্যায় কুটির শিল্প ঘোষনা করা ও প্রতি অর্থ বাজেটে সিগারেটের সাথে বৈষম্যমুলক শুল্কনীতি না করা সহ চার দফা দাবীতে বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশন এর উদ্যোগে বৃহস্পতিবার সকালে সিলেট নগরীর মেন্দিবাগের সিলেট কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট কার্যালয়ের সামনে এক মানববন্ধন ও কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের কমিশনার মোঃ শফিকুল ইসলামের পক্ষে অতিরিক্ত কমিশনার মো. নিয়াজুর রহমান এর কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।     মানববন্ধনে বক্তারা চার দফা দাবি তুলে ধরে বলেন, বাংলাদেশে সিগারেট যতদিন থাকবে বিড়ি ততদিন থাকবে। ভারতের ন্যায় বিড়ি শিল্পকে কুটির শিল্প ঘোষণা করতে হবে। ভারতের ন্যায় প্রতি হাজার বিড়িতে ১৪ টাকা ট্যাক্স নির্ধারণ করতে হবে। ২০ লক্ষ শলাকার নিচে বিড়ি উৎপাদন হলে ওই ফ্যাক্টরিগুলোকে ট্যাক্সের আওতামুক্ত রাখতে হবে।  মানববন্ধন থেকে বক্তারা হুশিয়ারী দিয়ে বলেন, ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের বিড়ি ও সিগারেটের মধ্যে কোন ধরণের বৈষম্যমুলক শুল্কনীতি ঘোষনা করা হলে সর্বস্তরের বিড়ি শ্রমিক ভোক্তা সহ বিড়ি শিল্প প্রতিনিধিরা কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে তা প্রতিহত করবে। তাই হাজার হাজার শ্রমিক কর্মচারীর পরিবার পরিজন নিয়ে এই শিল্পের মাধ্যমে দিনযাপন করছে। যদি তা বন্ধ করে দেয়া হয় তাহলে এ সমস্ত লোকজন কোথায় যাবে। সেদিকে খেয়াল করে বিড়ি শিল্পের বিষয়টি বিবেচনার জন্য জোর দাবি জানান।     মানববন্ধনে সংক্ষিপ্ত সভায় বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশন সিলেট অঞ্চলের আহ্বায়ক মো. মশিয়ার রহমানের সভাপতিত্বে ও সদস্য সাদেক আহমদের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন শ্রমিক নেতা লুৎফুর রহমান, ভোক্তার পক্ষের সভাপতি শাহজাহান মাস্টার, ব্যবসায়ী নেতা রেজাউল করিম, আব্দুল জব্বার, নারায়ন চন্দ্র সিংহ, রবি দাসসহ কয়েক শতাধিক শ্রমিক উপস্থিত ছিলেন।